প্রভাত বাংলা

site logo
Breaking News
||EURO 2024 : তুরস্ককে হারিয়ে রাউন্ড অফ 16-এ যোগ্যতা অর্জন করেছে পর্তুগাল ||রেকর্ড গড়লেন হার্দিক পান্ডিয়া , এই কীর্তি করতে পারেননি কোনও ভারতীয় অলরাউন্ডার||প্রদীপ সিং খারোলা কে? NEET, UGC-NET পরীক্ষা বিতর্কের মধ্যে এনটিএর কমান্ড কে পেলেন?||NEET Scam : NEET-UG পেপার ফাঁসের তদন্ত সিবিআই-এর হাতে তুলে দিল শিক্ষা মন্ত্রক||EURO 2024 : চেক প্রজাতন্ত্রের সাথে 1-1 ড্র করে প্রথম পয়েন্ট অর্জন করেছে জর্জিয়া ||NEET-PG পরীক্ষা স্থগিত, পরীক্ষার এক দিন আগে নির্দেশ জারি||NEET Scam :NEET অনিয়ম নিয়ে বড় অ্যাকশন, পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হল সুবোধ কুমারকে দোষারোপ, NTA-এর নতুন ডিজি হলেন প্রদীপ কুমার|| বিশ্বকাপে স্বর্ণপদক জিতেছে ভারতীয় মহিলা কম্পাউন্ড তীরন্দাজ দল, র‌্যাঙ্কিং-এও নম্বর-1 ||দিল্লির জল সঙ্কট, এলজি বলেছেন – AAP-এর অভিযোগ এবং পাল্টা অভিযোগের একই গল্প||ভারতীহরিকে প্রোটেম স্পিকার করার বিরুদ্ধে কংগ্রেসের বিরোধিতা, রিজিজু বললেন- মিথ্যার একটা সীমা থাকে

 এবার রাজনীতি নিয়ে নয়, চলচ্চিত্র নিয়ে কথা বলব’! ভোট দেওয়ার পর বিজেপির বলেন মিঠুন চক্রবর্তী

Facebook
Twitter
WhatsApp
Telegram
মিঠুন চক্রবর্তী

সকালে বেলগাছিয়া বুথে ভোট দেন মিঠুন চক্রবর্তী। শনিবার সকালে ভোটকেন্দ্র থেকে বের হওয়ার সময় ঘোষণা দেন এবার কী করবেন তিনি। বিজেপি নেতা স্পষ্ট করেছেন যে তিনি দলের নির্দেশ মেনে 30 মে পর্যন্ত কাজ করেছিলেন। এবার চলচ্চিত্র জগতে ফিরবেন তিনি। এখন রাজনীতি নিয়ে কথা বলবেন না। তিনি আরও বলেছিলেন যে তিনি এই গ্রীষ্মে ভোট দেওয়ার জন্য 40 মিনিটের জন্য লাইনে দাঁড়িয়েছিলেন।

শনিবার সকালে বেলগাছিয়ার একটি কেন্দ্রে ভোট দেন মিঠুন। বেরিয়ে এসে সাংবাদিকদের সঙ্গে দেখা করেন তিনি। 2024 সালের লোকসভা নির্বাচন শেষ। এবার সে কী করবে? সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মিঠুন বলেন, নির্বাচনের দায়িত্ব ছিল 30 মে পর্যন্ত। দলকে নির্দেশনা ছিল। এবার শেষ করেছি আমার কাজ পেশাগত জীবনে যাওয়া। শনিবার থেকে পেশাগত জীবনে প্রবেশ করছি। শনিবার থেকে ছবির কাজ করব।” তাঁর কথায়, ”ছবি নিয়ে কথা বলব। রাজনীতি নিয়ে কথা বলব না কেন এই সিদ্ধান্ত? জবাবে মিঠুন বলেন, আমি কখনোই একসঙ্গে দুটি কাজ করি না।

মিঠুন এ আরও বলেন, শনিবার তিনি সাধারণ মানুষের মতো কাতারে দাঁড়িয়ে ভোট দিয়েছেন। উত্তাপে 40 মিনিট লাইনে দাঁড়িয়েছিলেন তিনি। অনেকেই তাকে এগিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানান। তিনি রাজি হননি।

2021 সালের বিধানসভা নির্বাচনের আগে, মিঠুন ব্রিগেড গ্রাউন্ডে ধুতি-পাঞ্জাবি হাতে জাফরান পতাকা নেড়েছিলেন। তার আসার পর একই মঞ্চে দেখা গেল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে। এরপর নতুন দলে জোরেশোরে প্রচার চালান তৃণমূলের প্রাক্তন রাজ্যসভার সাংসদ মিঠুন। দিনে চার-পাঁচটি বৈঠক করেন। হেলিকপ্টারে করে সারা বাংলা ঘুরেছেন। লোকসভা নির্বাচনের সময় শারীরিক অসুস্থতার কারণে তিনি কম সভা এবং রোড শো করেছেন।

গত বিধানসভা নির্বাচনে মিঠুন প্রতিটি জনসভায় তাঁর ছবির সংলাপ বলতেন। তিনি বলতেন, “মৃত্যু এসেছে, মৃতদেহ শ্মশানে পড়বে।” সেই সংলাপ বলতেই মানিকতলা থানায় মিঠুনের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে তৃণমূলের প্রভাবশালী সংগঠন ‘নাগরিক ফোরাম’। অভিযোগ উঠেছে, নির্বাচনী প্রচারণার সময় মিঠুন যা বলেছেন তা সহিংসতা ছড়ানোর উসকানি। যেখানে বিজেপি জিতেছে সেখানে তৃণমূলের কর্মী ও সমর্থকদের ওপর হামলার জন্যও সম্বাদকে দায়ী করা হয়েছিল। এরপর বিষয়টি আদালত পর্যন্ত গড়ায়। এফআইআর বাতিল করতে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন মিঠুন। আদালত তাকে তদন্তে সহযোগিতা করার নির্দেশ দেন। ভার্চুয়াল মিডিয়ার মাধ্যমে মিঠুনকে জিজ্ঞাসাবাদও করে পুলিশ। তবে শেষ পর্যন্ত মিঠুনকে ‘স্বস্তি’ দিয়েছেন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি কৌশিক চন্দ। এরপর চলতি লোকসভা নির্বাচনের প্রচারের সময় মিঠুন খুব কমই এসব সংলাপ বলেন। তিনি বলেন, ভোটের পর আবারও চলচ্চিত্রের কাজে ফিরছেন।

বাংলার খবর ,ভারত এবং বিদেশের সর্বশেষ খবর, আপডেট এবং বিশেষ গল্প পড়ুন এবং নিজেকে আপ-টু-ডেট রাখুন, Google NewsX (Twitter), Facebook-এ আমাদের অনুসরণ করুন, https://prabhatbangla.com/

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো খবর

ট্রেন্ডিং খবর