প্রভাত বাংলা

site logo
Breaking News
||এবার ইরাকেও ইরানপন্থী সেনার উপরে চলল রাতভর বোমাবর্ষণ||গরুর দুধে পাওয়া গেছে প্রাণঘাতী ভাইরাস, সতর্কতা জারি করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা||Israel Iran War : ইরানকে ইসরাইললের যোগ্য জবাব, ক্ষেপণাস্ত্র ও ড্রোন ছুড়েছে অনেক শহরে|| অমিত শাহের বিরুদ্ধে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন 11 জন মুসলিম প্রার্থী, দেখুন কে বাজি খেলেছে এবং কে স্বতন্ত্র||পাকিস্তানে ভারী বর্ষণে ৮৭ জনের মৃত্যু, সতর্কতা জারি করেছে আবহাওয়া দফতর||রাহুল গান্ধীর দিকে কটাক্ষ করলেন কেরালার মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন, মনে করিয়ে দিলেন তাঁকে তাঁর ঠাকুরমার কথা||ইরান যে দেশটিকে হুমকি মনে করে, ইসরাইল তার সাহায্য নিয়েছিল হামলার জন্য|| শীঘ্রই একটি যৌথ ইশতেহার জারি করবে INDIA জোট, এই 7টি বড় প্রতিশ্রুতি দেওয়া হবে||জেনে নিন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সম্পত্তি কত!|| নাগাল্যান্ডের 6টি জেলায় একটিও ভোটার ভোট দেয়নি, পৃথক রাজ্যের দাবি উঠেছে; জেনে নিন কী বললেন মুখ্যমন্ত্রী

সুপ্রিম কোর্টে কর্ণাটক সরকারের পিটিশন, বলেছে- আমাদের জলের ঘাটতি মেটাতে কেন্দ্রকে তহবিল ছাড়ার নির্দেশ দিন

Facebook
Twitter
WhatsApp
Telegram
কর্ণাটক

কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী সিদ্দারামাইয়া শনিবার (23 মার্চ) বলেছিলেন যে জলের ঘাটতিতে ভুগছে রাজ্যটি কেন্দ্রীয় সরকারের কাছ থেকে তহবিল পাচ্ছে না। ন্যাশনাল ডিজাস্টার রেসপন্স ফান্ড (NDRF) কেন্দ্র থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেছে রাজ্য সরকার।

সিদ্দারামাইয়া বলেছেন যে আমরা গত 5 মাস ধরে তহবিলের জন্য অপেক্ষা করছিলাম। আমরা চাই সুপ্রীম কোর্ট আমাদের জলের ঘাটতি মেটাতে কেন্দ্রকে তহবিল ছেড়ে দেওয়ার নির্দেশ দিক। হোলির কারণে সুপ্রিম কোর্টে এক সপ্তাহের ছুটি রয়েছে। আমাদের আবেদনের শুনানি হবে আগামী সপ্তাহে।

আমরা রাজ্যের 236 টি তালুকের মধ্যে 223 টি তালুকে খরা ঘোষণা করেছি। আমরা এটিকে চারবার মূল্যায়নও করেছি। 48 লাখ হেক্টর জমির ফসল নষ্ট হয়েছে। আমরা তহবিলের জন্য কেন্দ্রের কাছে তিনবার স্মারকলিপি পাঠিয়েছি, কিন্তু এখন পর্যন্ত আমরা একটি পয়সাও পাইনি।

আমরা খরার জন্য আমাদের রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে 650 কোটি টাকা ছেড়ে দিয়েছি। এর সাথে, 33.44 লক্ষ কৃষকদের প্রত্যেককে 2,000 টাকা প্রদান করা হয়েছে। আমাদের আরও তহবিল দরকার, তাই কেন্দ্রের কাছে দাবি করা হচ্ছে।

সিদ্দারামাইয়া বলেন- শাহের সঙ্গেও দেখা হয়েছিল, কিন্তু কোনও সমাধান মেলেনি
সিদ্দারামাইয়া বলেছেন- গত বছরের অক্টোবরে কেন্দ্রীয় সরকারের একটি দল রাজ্যে এসে পরিদর্শন করেছিল। খরা নিয়ে কেন্দ্রের কাছে রিপোর্টও পেশ করেছেন তিনি। এক মাসের মধ্যে কেন্দ্রকে রাজ্যের জন্য তহবিল প্রকাশের নির্দেশ দিতে হয়েছিল।

কেন্দ্র যখন আমাদের দাবি মেনে নেয়নি, আমি এবং রাজস্ব মন্ত্রী কৃষ্ণবায়ের গৌড়া দিল্লি গিয়েছিলাম, কিন্তু কোনও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী আমাদের সঙ্গে দেখা করেননি। এর পরে, 20 ডিসেম্বর আমি এবং কৃষ্ণবাইরে গৌড়া আবার দিল্লি গিয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সাথে দেখা করি। আমরা তাদের ফান্ড রিলিজ করার জন্য অনুরোধ করেছি, কিন্তু কোন সমাধান পাওয়া যায়নি।

কর্ণাটকের 196টি তালুকে জলের সংকট গুরুতর
দেশের আইটি হাব বেঙ্গালুরুতে 40% বোরওয়েল শুকিয়ে গেছে। ভূগর্ভস্থ পানি 1800 ফুট নিচে চলে গেছে। জলের ট্যাঙ্কারের দাম দ্বিগুণ হয়েছে, সেগুলিও অনেক অনুরোধের পরেই পাওয়া যাচ্ছে। কর্ণাটক সরকার 240টি তালুকের মধ্যে 223টিতে খরা ঘোষণা করেছে। এর মধ্যে 196  জন মারাত্মক খরায় আক্রান্ত বলে জানা গেছে।

রাজ্যের জলসম্পদ মন্ত্রী শিবকুমার জানিয়েছেন, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে ট্যাঙ্কারের মাধ্যমে জল সরবরাহ করা হচ্ছে। জল যাতে নষ্ট না হয় সেদিকে অগ্রাধিকার দেওয়া হয়। ব্রুহাত বেঙ্গালুরু মেট্রোপলিটন মিউনিসিপ্যালিটি এবং বেঙ্গালুরু ওয়াটার সাপ্লাই অ্যান্ড স্যুয়ারেজ বোর্ড এই বিষয়ে সমস্ত প্রচেষ্টা চালাচ্ছে।

শিবকুমার বললেন- গত তিন-চার দশকে এত প্রচণ্ড খরা দেখিনি
কর্ণাটকের ডেপুটি সিএম শিবকুমার 11 ই মার্চ বলেছিলেন যে রাজ্যটি গত তিন-চার দশকে এতটা মারাত্মক খরা দেখেনি এবং পরবর্তী দুই মাস খুব গুরুত্বপূর্ণ, তবে পরিস্থিতি ততটা খারাপ নয় যতটা বিরোধীরা করছে। তিনি বলেন, এখন কাবেরী নদীর পানি তামিলনাড়ুতে ছাড়ার প্রশ্নই ওঠে না। এটা কোনো মূল্যেই হবে না।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো খবর

ট্রেন্ডিং খবর