প্রভাত বাংলা

site logo
Breaking News
||Nafe Singh Rathee : হরিয়ানায় আইএনএলডি নেতা নাফে সিং রাঠির হত্যার তদন্ত করবে সিবিআই, পাওয়া গেছে খুনিদের সিসিটিভি ফুটেজ||Maratha movement :মহারাষ্ট্রের  জালনায় বাস পুড়িয়ে দিয়েছে মারাঠা আন্দোলনকারীরা, তিনটি জেলায় ইন্টারনেট বন্ধ||Dhruv Jurel :পিচের মাঝখানে এমন কিছু করেন ধ্রুব জুরেল, তখনই বৃষ্টি হয়, কুলদীপ যাদবের বড় প্রকাশ||Job Scam : নিয়োগের দাবিতে রাস্তায় বঞ্চিত চাকরি প্রার্থীরা||Himanta Biswa Sarma : ‘যতদিন আমি বেঁচে আছি, আমি আসামে বাল্যবিবাহ হতে দেব না’, বিধানসভায় বললেন মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা||Sheikh Shajahan : শেখ শাহজাহানকে গ্রেপ্তারে বাধা নেই, সন্দেশখালি মামলায় নির্দেশ হাইকোর্টের||Sandeshkhali : তৃণমূলের ‘জনগর্জন’-এর দিনে সন্দেশখালিতে সভা করবে সিপিএম!||IND vs ENG:  রাঁচির যুদ্ধে জিতেছে ভারত, চতুর্থ টেস্টে ইংল্যান্ডকে 5 উইকেটে হারিয়ে সিরিজও দখল করেছে||Shah Rukh Khan : ‘ভোলি সি সুরত’ গানটি গেয়েছেন জন সিনা, যা দেখে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন শাহরুখ খান||Maldives: ভারতীয় সেনাদের সম্পর্কে রাষ্ট্রপতি মুইজ্জুর দাবিকে মিথ্যা বলে অভিহিত করেছেন প্রাক্তন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

Meri Mati -Mera Desh : মেরি মাটি -মেরা দেশ অমৃত কলশ যাত্রা সমাপ্ত, মোদি বলেছেন – সারা দেশ থেকে আনা মাটি সিদ্ধির জন্য অনুপ্রাণিত করবে

Facebook
Twitter
WhatsApp
Telegram
মোদি

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি মঙ্গলবার দিল্লির কার্তব্য পথ (বিজয় চক) এ মেরি মাটি মেরা দেশ অমৃত কলশ যাত্রার সমাপনী অনুষ্ঠানে অংশ নেন। এ সময় তিনি বলেন, আজ সর্দার বল্লভভাই প্যাটেলের জন্মজয়ন্তী উপলক্ষে কর্তব্যের পথ এক ঐতিহাসিক মহাযজ্ঞের সাক্ষী হচ্ছে।

এ সময় তিনি সারাদেশ থেকে আনা মাটি ভারত কলশে রেখে তিলক লাগিয়ে সাহসী নারী-পুরুষদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান। প্রধানমন্ত্রী মেরা যুব ভারত পোর্টালও চালু করেন।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী এই সফরের একটি ডিজিটাল প্রদর্শনীও দেখেন। সারা দেশের গ্রাম থেকে মাটি ভর্তি সাড়ে আট হাজার অমৃতের কলস দিল্লিতে আনা হয়েছে। এটি সংগ্রহ করা হয়েছে কর্তব্য পথের কাছে রাখা ভারত কলাশে।

মোদির সম্বোধন সম্পর্কে 5 টি কথা…

অনেকের মনেই এই প্রশ্ন জাগতে পারে যে শুধু মাটি কেন, শুধু মাটি ভরা হাঁড়ি কেন? একজন কবি বলেছেন- এই সেই মাটি যেখান থেকে জীবন ফুটে ওঠে। বীরেরা এই মাটিতে শপথ নিয়ে স্বাধীনতার জন্য যুদ্ধ করেছেন। এই মাটি নিয়ে অনেক গল্প আছে। বহু বছর আগে একটি শিশু মাটিতে কাঠ বুনছিল। বাবা জিজ্ঞেস করলেন- কি বপন করছ? ছেলেটি বলল- আমি বন্দুক লাগিয়ে দেশকে স্বাধীন করব। তিনি ছিলেন বীর ভগৎ সিং।

আমরা আমাদের কপালে মাটির আকারে চন্দন লাগাতে চাই। আমাদের মনে মাটির ঋণ যে শোধ করে সে বেঁচে থাকে। তাই এখানে যে অমৃতের কলস এসেছে, তার ভিতরের মাটির প্রতিটি কণা অমূল্য। এগুলো সুদামার বান্ডিলে রাখা চালের মতো। সারাদেশ থেকে আনা এই মাটিতে রয়েছে দেশের অগণিত আকাঙ্খা ও সংকল্প। এই মাটি উন্নত ভারতের অর্জন এবং কঠোর পরিশ্রমের জন্য আমাদের অনুপ্রাণিত করবে। আজ আমরা প্রতিজ্ঞা করছি যে আমরা প্রত্যেক মানুষের কাছে যাব এবং তাকে জাগাব। এই মাটিতে আমি শপথ করে বলছি, আমরা ভারতকে মহান করব।

সারা দেশ থেকে আসা গাছপালা দিয়ে এই মাটি দিয়ে তৈরি হচ্ছে অমৃত ভাটিকা। আজ তার ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়েছে। এটি আগামী প্রজন্মকে উন্নত ভারতের জন্য অনুপ্রাণিত করবে। দেশের মাটি থেকে দেশের ৭৫ জন শিল্পীর তৈরি একটি শিল্পকর্ম রয়েছে নতুন সংসদে। স্বাধীনতার অমৃত মহোৎসব প্রায় 1000 দিন ধরে চলে। এর সবচেয়ে ইতিবাচক প্রভাব পড়েছে তরুণদের ওপর। আমরা অনেকেই দাসত্ব দেখিনি। আমিই প্রথম প্রধানমন্ত্রী যিনি স্বাধীনতার পর জন্মগ্রহণ করেছেন।

আমি যখন দূরদর্শনে স্বরাজ সিরিজ দেখছিলাম, তখন তরুণদের মধ্যেও একই অনুভূতি দেখতে পাচ্ছি। হর ঘর তেরঙা অভিযানের সাফল্য দেশের কোটি কোটি মানুষের সাফল্য।

একটি বিশাল ডাটাবেস তৈরি করা হয়েছে, আল্লুরী সীতারাম রাজু, তান্ত্য ভিল, রানি চেন্নামা, রানি গুইডিলু, মাতঙ্গী হাজরা, বীরাঙ্গনা ঝলকারি বাইয়ের মতো অনেক ব্যক্তিত্ব দেশকে জানার সুযোগ পেয়েছেন। নিয়ত ভালো হলে ফলও ভালো হয়।

আমরা সফলভাবে করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধ করেছি। এই সময়ে আমরা উন্নত ভারতের জন্য রোডম্যাপ তৈরি করেছি। অমৃত মহোৎসবের সময় বিশ্বের পঞ্চম বৃহত্তম অর্থনীতি হয়ে ওঠে। চাঁদে চন্দ্রযান পাঠিয়েছে ভারত। দেশের প্রথম আঞ্চলিক ট্রেন নমো ভারত চালু হল। দেশ পেল নতুন সংসদ ভবন। এরকম অসংখ্য বিষয় আপনাদের সামনে তুলে ধরতে পারি। রাজপথ থেকে কর্তব্যের পথে যাত্রা করেছে দেশ।

আজ আমরা শপথ নিই- আমরা গিয়ে জনগণকে জাগাব, এই মাটির শপথ, আমরা ভারতকে মহান করব। সে কৃষক হোক বা সাহসী সৈনিক… যার রক্ত-ঘাম এতে মিশে নেই। এ মাটি সম্পর্কে বলা হয়েছে- চন্দন এদেশের মাটি, প্রতিটি গ্রাম তপস্বিনী।

এই অভিযান গণআন্দোলনে রূপ নেয়: সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়
সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, এই অভিযান গণআন্দোলনে রূপ নিয়েছে, যেখানে এ পর্যন্ত দুই লাখের বেশি কর্মসূচি হয়েছে। একই সময়ে, এই প্রচারের সাথে সম্পর্কিত 4 ​​কোটিরও বেশি সেলফিও এর ওয়েবসাইটে আপলোড করা হয়েছে।

তিনি বলেছিলেন যে এই অভিযান চলাকালীন, গ্রাম পঞ্চায়েত এবং গ্রামসভার স্তরে এখনও পর্যন্ত 2.33 লক্ষেরও বেশি শিলালিপি স্থাপন করা হয়েছে। স্মরণ করা হয়েছে স্বাধীনতার বীর শহীদদের। অধিকাংশ শিলালিপি অমৃত সরোবরের কাছে স্থাপিত হয়েছে।

এই প্রচারাভিযানের অধীনে, সারা দেশে 2.63 লক্ষেরও বেশি অমৃত ভাটিকস তৈরি করা হয়েছে, যার মধ্যে প্রায় 24 লক্ষ চারা রোপণ করা হয়েছে।

মেরি মাতি মেরা দেশ প্রচার কি?
মেরি মাতি মেরা দেশ অভিযানের আওতায় অমৃত কলশের মাধ্যমে গ্রাম থেকে গ্রাম দিল্লিতে মাটি আনা হয়েছে। এটি একটি বড় কলাশে (ভারত কলাশ) রেখে মিশ্রিত করা হয়েছে। এই প্রচারণার উদ্দেশ্য দেশের ঐক্য দেখানো।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো খবর

ট্রেন্ডিং খবর