প্রভাত বাংলা

site logo
Breaking News
||‘দলবিরোধী’ কার্যকলাপের জন্য বিনয় তামাংকে ৬ বছরের জন্য বহিষ্কার করল কংগ্রেস||সিঙ্গাপুরে ভারতীয় বংশোদ্ভূত পুরুষের 20 বছরের সাজা||ইন্দোনেশিয়ায় আগ্নেয়গিরি দেখতে যাওয়া মহিলা পাহাড় থেকে পড়ে মৃত্যু||ব্রিটেনের পার্লামেন্টে রুয়ান্ডা বিল পাস,  অবৈধ শরণার্থীদের আফ্রিকায় ফেরত পাঠাবে||নির্বাচন কমিশনের কাছে কলকাতা হাইকোর্টের আবেদন – ‘বহরমপুরের ভোট পিছিয়ে দিতে ’ ||কেরালার বিধায়ক বলেছেন- রাহুলকে তার ডিএনএ পরীক্ষা করানো উচিত||তেলেঙ্গানায় ভেঙে পড়েছে 8 বছর ধরে নির্মিত সেতু, প্রবল বাতাসের কারণে দুটি কংক্রিটের গার্ডার ভেঙে পড়েছে||ইংলিশ চ্যানেল পার হতে গিয়ে শিশুসহ পাঁচজনের মৃত্যু, সৈকতে পাওয়া গেছে মৃতদেহ ||এখন এই দলের খেলা নষ্ট করতে পারে RCB, প্লে-অফে সংকট হতে পারে||বিশ্ববিদ্যালয় আইন সংশোধনী বিল স্বাক্ষর না করায় রাজ্যপালের বক্তব্য শুনতে নোটিশ জারি করল সুপ্রিম কোর্ট

মহাকাল মন্দিরে বড় দুর্ঘটনা, ভস্ম আরতিতে আগুন, প্রধান পুরোহিতসহ ১৩ জন দগ্ধ

Facebook
Twitter
WhatsApp
Telegram
মহাকাল মন্দির

মধ্যপ্রদেশের উজ্জাইনে অবস্থিত মহাকাল মন্দিরে সোমবার সকালে একটি বড় দুর্ঘটনা ঘটেছে। গর্ভগৃহে হোলির দিন ভস্ম আরতির সময় গুলাল উড়িয়ে আগুন ছড়িয়ে পড়ে এবং এতে 13 জন দগ্ধ হয়। যারা দগ্ধ হয়েছেন তাদের মধ্যে পুরোহিত ও চাকরও রয়েছেন। আহত সকলকে জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে যেখানে তাদের চিকিৎসা চলছে। মহাকাল মন্দিরে ভাসমর্তির প্রধান পুরোহিত সঞ্জয় গুরু, বিকাশ পূজারি, মনোজ পূজারি, অংশ পুরোহিত, ভৃত্য মহেশ শর্মা ও চিন্তামন গেহলটসহ অনেকে আহত হন।

উজ্জয়নের কালেক্টর নীরজ কুমার সিং বলেন, ভস্ম আরতির সময়ও গুলাল ব্যবহার করা হয়। ভস্ম আরতির সময়, আজ গর্ভগৃহের ভিতরে কর্পূর পোড়ানো হয়েছিল, যার কারণে ভিতরে উপস্থিত 13 জন পুরোহিত দগ্ধ হয়েছেন। ওই ব্যক্তিদের জেলা হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। কোনো গভীর ক্ষত নেই, সব স্থিতিশীল এবং চিকিৎসকরা তাদের চিকিৎসা করছেন। মন্দিরে নির্বিঘ্নে চলছে দর্শন। মন্দিরে কোনো ধরনের সমস্যা নেই।

চাকর বললো সে চোখ দিয়ে দেখেছে
সে সময় বিশ্ব বিখ্যাত জ্যোতির্লিঙ্গ মহাকালেশ্বর মন্দিরে হাজার হাজার ভক্তের সমাগম ছিল। সবাই মহাকালের সঙ্গে হোলি উদযাপন করছিল। আহত চাকর জানান, পেছন থেকে আরতি করা পুরোহিত সঞ্জীবের গায়ে কেউ গুলাল ঢেলে দেয়। গুলাল পড়ল প্রদীপের উপর। গুলালে রাসায়নিক থাকার কারণেই সম্ভবত আগুন লেগেছে। অন্যদিকে, গর্ভগৃহের রূপালী দেয়ালকে রঙ ও গুলাল থেকে রক্ষা করার জন্য সেখানে ফ্লেক্স স্থাপন করা হয়েছিল। এতেও আগুন ছড়িয়ে পড়ে।

তিনি জানান, আগুন লাগার পর কয়েকজন অগ্নিনির্বাপক যন্ত্র দিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। কিন্তু ততক্ষণে গর্ভগৃহে উপস্থিত 13 জন, যাদের মধ্যে সঞ্জীব পূজারি, বিকাশ, মনোজ, সেবাধারী আনন্দ কমল যোশী, যারা আরতি করছিল, তারা অগ্নিদগ্ধ হন। এই বিষয়ে কালেক্টর নীরজ সিং বলেন, বিষয়টি তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। একটি কমিটি এ বিষয়ে তদন্ত করবে।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো খবর

ট্রেন্ডিং খবর