প্রভাত বাংলা

site logo
Breaking News
||মুসলিম ভোট পেতে সাধুদের অপমান করছেন মুখ্যমন্ত্রী, মমতাকে আক্রমণ করলেন প্রধানমন্ত্রী মোদী||সীতা কুন্ড: মা সীতার অগ্নিপরীক্ষা হয়েছিল এখানে, এই কুন্ডের জল সবসময় থাকে গরম ||তাহলে কি খুঁজে পাওয়া গেছে আলাদিনের আসল প্রদীপ? ‘জাদু’ দেখে স্তম্ভিত হয়ে যাবেন||নিজের ভবিষ্যৎ ঠিক করে ফেলেছেন এমএস ধোনি, বড় বিবৃতি দিলেন সিএসকে কোচ||ভুলেশ্বর মহাদেব: এই মন্দিরে পিন্ডির নিচে দেওয়া হয় প্রসাদ , সন্ধ্যা আরতির মাধ্যমে পাত্র খালি হয়ে যায়||অপেক্ষা শেষ, বর্ষা এসেছে; হলুদ সতর্কতা জারি করল IMD, জানুন কি বলছে সর্বশেষ আপডেট?||সৌদি ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে আমেরিকার এনএসএ দেখা, প্রতিরক্ষা চুক্তি নিয়ে সমঝোতা ?||উত্তরপ্রদেশে রাহুল ও অখিলেশের সমাবেশে নিয়ন্ত্রণের বাইরে ভিড় পদদলিত হল, বহু আহত||টিম ইন্ডিয়ার কোচ হতে অস্বীকার করলেন জাস্টিন ল্যাঙ্গার ||কেজরিওয়ালকে বিজেপি অফিসে যেতে বাধা দেয় পুলিশ ,বিক্ষোভ শেষ 

Lok Sabha 2024 : ভোটের ময়দানে রান্না লকেটের, খাবার পরিবেশনে রচনার!

Facebook
Twitter
WhatsApp
Telegram
রচনা

তারা টলিউডে সহকর্মী। তবে নির্বাচনে শক্তিশালী প্রতিদ্বন্দ্বী  লোকসভা এবং বিধানসভায় প্রত্যেকে তিনটি ভোটের জন্য একজন ব্যক্তির লড়াইয়ের অভিজ্ঞতা। বিদায়ী এমপি  অন্যরা সম্পূর্ণভাবে নিরুৎসাহিত। তবে নির্বাচনী প্রচারণার মাঠে মাঠ ছাড়তে নারাজ কেউ কেউ। বিজেপি প্রার্থী লকেট চ্যাটার্জি এবং তৃণমূলের রচনা ব্যানার্জি হুগলি কেন্দ্রে প্রচার করছেন৷

চতুর্থ দিনের মতো নির্বাচনী প্রচারণায় নেমেছেন ‘দিদি নম্বর ওয়ান’ অনুষ্ঠানের উপস্থাপক ও অভিনেত্রী রচনা। বিকেলে দলের ভোজসভায় তিনি শ্রমিকদের খাবার পরিবেশন করেন। অন্যদিকে, কেন্দ্রে তার প্রতিদ্বন্দ্বী, লকেট, জনসংযোগের প্রচার করেন। নির্বাচনী লড়াইয়ে তারা একে অপরের জন্য এক ইঞ্চি জায়গাও ছাড়তে রাজি নয়।

মঙ্গলবার নির্বাচনী প্রচারে পোলবা রাজহাট পঞ্চায়েত এলাকায় গিয়েছিলেন লকেট। সেখানে তিনি গ্রামের মানুষের সঙ্গে দেখা করেন। সবার সাথে কথা বলুন। এরপর রাজহাট এলাকার ওলাবিবিতলায় মোমবাতি জ্বালিয়ে প্রার্থনা করেন বিজেপি প্রার্থী। প্রতি বছর এই সময়ে রাজহাট ওলাবিবিতলায় রান্না পূজা উৎসবের আয়োজন করা হয়। সেখানে অনেক মানুষ জড়ো হয়। রীতি অনুযায়ী ওলাবিবিতলার মেঝেতে খাবার রান্না করে গ্রামবাসীরা। সেখানে খাওয়া-দাওয়া। ওলাবিবিতলার প্রার্থনার পর লকেটও গ্রামের লোকজনের সঙ্গে খাবার রান্না করতে থাকে। তাকে দেখতে ভিড় জমেছে। বিজেপির তারকা প্রার্থীও কিছু লোকের নির্দেশে নিজের মর্যাদা বাড়িয়েছেন।

অন্যদিকে চন্দননগরে নির্বাচনী প্রচারণার সময় রচনা ঘোষণা করেন, “জীবনে আমার আর কিছু পাওয়ার নেই। এবার মানুষের জন্য কিছু করতে চাই। তাকে দেখতে রাস্তার দুই পাশে ভিড় জমে যায়। বৌচন্ডীতলা থেকে বের হয়ে প্রথমে বিন্দুবাসিনী এলাকা ও পরে লক্ষ্মীগঞ্জ বাজারে গিয়ে বিভিন্ন এলাকায় প্রচারণা চালান। পরে একটি লজে কর্মীদের নিয়ে ‘ইউনিটি ভোজ’-এ অংশ নেন।

রচনা বললেন, আমি নাম নিয়েছি। এখন জীবনের শেষ পনের-বিশ বছরে মানুষের জন্য কিছু করতে পারলেই খুশি হব। আমার জীবনে অর্জন করার আর কিছুই নেই। আমি হুগলিতে এসেছি ‘দিদি নাম্বার ওয়ান’ হয়ে। মানুষের প্রতি আস্থা রাখুন। তাই বলছি, আমি জিতব।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো খবর

ট্রেন্ডিং খবর