প্রভাত বাংলা

site logo
Breaking News
||ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসির হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত,  করা হয়েছে জরুরি অবতরণ||পাঞ্জাবকে ৪ উইকেটে হারিয়ে হায়দরাবাদ: পয়েন্ট টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে পৌঁছেছে হায়দরাবাদ||অধীর সম্পর্কে খড়গের মন্তব্যে ক্ষুব্ধ বাংলার কর্মীরা, পোস্টারে কালি|| কেন রাজনীতি থেকে অবসর নিলেন ব্রিজ ভূষণ শরণ সিং?||Horoscope Tomorrow :  বৃষ, সিংহ, মকর, মীন রাশির মানুষ প্রতারিত হতে পারেন, জেনে নিন আগামীকালের রাশিফল||আইপিএল 2024 এর মধ্যে স্টার স্পোর্টসের বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ করেছেন রোহিত শর্মা ||অনন্যা পান্ডেকে নিয়ে ‘গ্লো অফ ব্রেকআপ’? অভিনেত্রীর সাহসী ছবি নিয়ে ঝড়||তারক মেহতার সোধির প্রত্যাবর্তন নিয়ে প্রযোজক অসিত মোদির প্রতিক্রিয়া ||গরুড় পুরাণ: মৃত্যুর পরে কি আত্মাদের চলতে হয়? জেনে নিন এর রহস্য||মুসলিম ভোট পেতে সাধুদের অপমান করছেন মুখ্যমন্ত্রী, মমতাকে আক্রমণ করলেন প্রধানমন্ত্রী মোদী

AUS vs NZ: নিউজিল্যান্ড এবং অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচ, শেষ বলে জিতেছে ক্যাঙ্গারুরা

Facebook
Twitter
WhatsApp
Telegram
অস্ট্রেলিয়া

শনিবার অস্ট্রেলিয়া এবং নিউজিল্যান্ডের মধ্যে বিশ্বকাপ 2023 এর 27 তম ম্যাচ খেলা হয়েছিল। ধর্মশালার হিমাচল প্রদেশ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত এই ম্যাচে ওপেনার ট্র্যাভিস হেড এবং ডেভিড ওয়ার্নারের বিস্ফোরক ব্যাটিংয়ে অস্ট্রেলিয়া নিউজিল্যান্ডকে 389 রানের লক্ষ্য দেয়। জবাবে, রচিন রবীন্দ্র নিউজিল্যান্ডের হয়ে ঝড়ো সেঞ্চুরি খেলেন এবং শেষ পর্যন্ত জেমস নিসোম তার বিস্ফোরক ব্যাটিংয়ে ম্যাচটিকে উত্তেজনাপূর্ণ করে তোলেন। শেষ ওভারে জয়ের জন্য কিউই দলের প্রয়োজন ছিল 19 রান। জেমস নিসোম শেষ পর্যন্ত সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছিলেন। শেষ দুই বলে 7 রান দরকার ছিল, কিন্তু দুই রান নিতে গিয়ে রান আউট হন জেমস। শেষ বলে 6 রান দরকার ছিল, কিন্তু লকি ফার্গুসন কোনো রান করতে পারেননি এবং এইভাবে অস্ট্রেলিয়া 5 রানে ম্যাচ জিতে নেয়।

72রানে প্যাভিলিয়নে ফেরেন দুই কিউই ওপেনার।

অস্ট্রেলিয়ার 389 রানের টার্গেট তাড়া করতে আসা নিউজিল্যান্ড যে ধরনের সূচনা দরকার তা পায়নি। নিউজিল্যান্ড প্রথম ধাক্কা পায় ডেভন কনওয়ের রূপে 8 ম ওভারে 61 রানে। 17 বলে 28 রান করার পর কনওয়ে হ্যাজেলউডের বল স্টার্কের হাতে তুলে দেন। এরপর 10 ম ওভারের চতুর্থ বলে 72 রানে নিউজিল্যান্ডকে দ্বিতীয় ধাক্কা দেন জশ হ্যাজলউড। 37 বলে 32 রান করে স্টার্কের হাতে ক্যাচ আউট হন ওপেনার উইল ইয়াং।

37  ওভারে 265 রানে প্যাভিলিয়নে ফিরে যায় অর্ধেক দল

168  রানে নিউজিল্যান্ডের তৃতীয় উইকেটের পতন হয় ড্যারিল মিচেলের ফর্মে। 51 বলে 6 চার ও 1 ছক্কায় 54 রানের ইনিংস খেলে জাম্পার শিকার হন তিনি। এরপর কিউই দলকে চতুর্থ ধাক্কা দেন 32 তম ওভারে 222 রানে অ্যাডাম জাম্পা। 22 বলে 21 রান করে হ্যাজলউডের হাতে ক্যাচ দেন ক্যাপ্টেন টম ল্যাথাম।

265 রানে 37তম ওভারের শেষ বলে গ্লেন ফিলিপসের রূপে পঞ্চম উইকেটের পতন ঘটে। 16 বলে 12 রানের ইনিংস খেলেন তিনি। তিনি ম্যাক্সওয়েলের বল লাবুশগেনের হাতে খেলেন। এভাবে 37 ওভারে 265 রান করে প্যাভিলিয়নে ফিরে যায় কিউই দলের অর্ধেক।

ঝড়ো সেঞ্চুরির ইনিংস খেলেন রচিন রবীন্দ্র

কিউই দলকে ষষ্ঠ বড় ধাক্কাটা রচিন রবীন্দ্রের ফর্মে। রচিন 89 বলে 9  চার ও 5 ছক্কায় 116 রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন। কামিন্সের বলে ল্যাবুসচেনের হাতে ক্যাচ আউট হন রাচিন। এরপর 44 তম ওভারে 320 রানে নিউজিল্যান্ডের ৭ম উইকেট পড়ে যায়। 17  রান করে অ্যাডাম জাম্পার তৃতীয় শিকার হন মিচেল স্যান্টনার। 47তম ওভারে 346 রানে ম্যাট হেনরির রূপে 8তম উইকেটের পতন ঘটে। 9 রান করে কামিন্সের শিকার হন তিনি।

শেষ ওভারে জিতেছে অস্ট্রেলিয়া

শেষ ওভারে জয়ের জন্য কিউই দলের প্রয়োজন ছিল19  রান। জেমস নিসাম শেষ পর্যন্ত সর্বোচ্চ চেষ্টা করেন।শেষ দুই বলে 7  রান দরকার ছিল, কিন্তু দুই রান নিতে গিয়ে রান আউট হন জেমস। 39 বলে 58 রানের বিস্ফোরক ইনিংস খেলেন তিনি। লকি ফার্গুসন শেষ বলে ছয় রান করতে হলেও কোনো রান করতে পারেননি। এভাবে মাত্র 5 রানে ম্যাচ জিতে নেয় অস্ট্রেলিয়া।

এর আগে, শক্তিশালী শুরু সত্ত্বেও অস্ট্রেলিয়া 49.2 ওভারে মাত্র 388 রান করতে পারে। ইনজুরি কাটিয়ে ফিরে ঝড়ো খেলা দেখালেন ট্র্যাভিস হেড। হেড কিউই বোলারদের মারধর করে মাত্র 59বলে সেঞ্চুরি করেন। 67 বলে 10টি চার ও সাতটি ছক্কায় 109 রানের ইনিংস খেলেন হেড। যেখানে ডেভিড ওয়ার্নার 65 বলে 6 ছক্কা ও 5 চারের সাহায্যে করেন 81  রান। দুজনেই প্রথম উইকেটে 117 বলে 175 রানের রেকর্ড জুটি গড়েন।

অস্ট্রেলিয়ার সংগ্রহ ছিল 388 রান

ট্র্যাভিস হেড এবং ডেভিড ওয়ার্নার যখন ব্যাটিং করছিলেন, তখন মনে হচ্ছিল অস্ট্রেলিয়া কমপক্ষে 450 রান করবে, কিন্তু এর পরে উইকেটের এমন ঝড় ওঠে যে অস্ট্রেলিয়া 388 রানে নেমে যায়। অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ম্যাক্সওয়েল 24  বলে 5 চার ও 2 ছক্কায় 41 রান, মিচেল মার্শ 51 বলে 36 রান, স্টিভ স্মিথ 17 বলে 18 রান, জোস ইংলিশ 38 বলে 38  রান, অধিনায়ক প্যাট কামিন্স। করেন 14 বলে 37 রানের ইনিংস। নিউজিল্যান্ডের পক্ষে ট্রেন্ট বোল্ট ও গ্লেন ফিলিপস 3 টি করে এবং মিচেল স্যান্টনার নেন 2 টি উইকেট।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো খবর

ট্রেন্ডিং খবর