প্রভাত বাংলা

site logo
Breaking News
|| জাপানে ছড়িয়ে পড়েছে মাংস খাওয়া ব্যাকটেরিয়া, এটি 48 ঘন্টার মধ্যে মৃত্যু ঘটায়||আমির খানের প্রত্যাবর্তনের জন্য প্রস্তুত হন, ‘সিতারে জমিন পর’ সম্পর্কে এই নতুন আপডেট প্রকাশিত ||হেরে যাওয়াদেরও কর্মীদের পাশে দাঁড়ানো উচিত, বার্তা দিলীপ ঘোষের||দুর্গাপুজো পর্যন্ত বাংলায় কেন্দ্রীয় সেনা রাখার আবেদন শুভেন্দু অধিকারীর ||EURO Cup 2024 : পোল্যান্ড-নেদারল্যান্ডস ম্যাচের আগে ভক্তদের কুড়াল দিয়ে আক্রমণ, অভিযুক্তকে গুলি করে পুলিশ||ইভিএম বিতর্কে নীরবতা ভাঙল নির্বাচন কমিশন, মোবাইল ওটিপির প্রশ্নে এই উত্তর দিল|| 27 মাস পর একটি বিশেষ দিনে বিশেষ সেঞ্চুরি করলেন স্মৃতি মান্ধনা||রাশিয়ার ডিটেনশন সেন্টারের বেশ কয়েকজন কর্মীকে বন্দি করেছে আইএসআইএস||রুদ্রপ্রয়াগের পর এখন পাউড়িতে মর্মান্তিক দুর্ঘটনা, খাদে গাড়ি পড়ে ; 4 মৃত… 3 জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক||কেন ইভিএম ব্যবহারের জেদ? ইলন মাস্কের মন্তব্যের পর অখিলেশ যাদবের প্রশ্ন

প্রথমবারের মতো জেলেনস্কির কাছে ক্ষমা চাইলেন বাইডেন

Facebook
Twitter
WhatsApp
Telegram
বাইডেন

প্রথমবারের মতো জেলেনস্কির কাছে প্রকাশ্যে ক্ষমা চেয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। সামরিক সাহায্য বিলম্বের কারণে তিনি ক্ষমা চেয়েছেন। বাইডেন বলেন, এর কারণেই রাশিয়া যুদ্ধক্ষেত্রে ইউক্রেনের ওপর নেতৃত্ব দিয়েছে।

বার্তা সংস্থা এপির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আমেরিকা ইউক্রেনের সঙ্গে 61 বিলিয়ন ডলারের সামরিক প্যাকেজ চুক্তি করেছে। রিপাবলিকান এমপিদের বিরোধিতার কারণে এটি ছয় মাসের জন্য মার্কিন পার্লামেন্টে স্থগিত ছিল।

এই বিলম্বের বিষয়ে, বিডেন জেলেনস্কিকে বলেছিলেন – আমি কয়েক সপ্তাহের বিলম্বের জন্য ক্ষমাপ্রার্থী। এর জন্য আপনার কী ক্ষতি হয়েছিল তা আমার ধারণা ছিল না।

বাইডেন বলেন, আমেরিকান জনগণ দীর্ঘ মেয়াদে ইউক্রেনের পাশে দাঁড়িয়েছে। আমি নিজেও সম্পূর্ণরূপে ইউক্রেনের পাশে আছি। এর সাথে, বিডেন আলাদাভাবে ইউক্রেনের জন্য 225 মিলিয়ন ডলারের একটি সহায়তা প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধে ইউক্রেনকে তাদের শক্তিশালী যুদ্ধবিমান মিরাজ দেওয়ার ঘোষণা দেন। ডি-ডে উপলক্ষে ম্যাক্রোঁ ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির সঙ্গে দেখা করে একথা বলেন।

সংবাদ সংস্থা এপি জানায়, শুক্রবার ম্যাক্রোঁ ও জেলেনস্কির মধ্যে এই চুক্তি হবে। ম্যাক্রোঁ বলেন, ইউক্রেন রাশিয়ার বিরুদ্ধে আত্মরক্ষার জন্য মিরাজ ব্যবহার করবে। এর জন্য ইউক্রেনের পাইলটদের প্রশিক্ষণও দেবে ফ্রান্স।

এর একদিন আগে রাশিয়া হুঁশিয়ারি দিয়েছিল, ইউক্রেনে ফরাসি সেনাবাহিনীর কোনো কর্মকর্তা উপস্থিত থাকলে অবশ্যই তাকে আক্রমণ করবে। আসলে, রাশিয়ার অভিযোগ, ফরাসি সেনাবাহিনী ইউক্রেনের অফিসারদের প্রশিক্ষণ দিচ্ছে।

বৃহস্পতিবার ডি-ডে উপলক্ষে ফ্রান্সে একত্রিত হয়েছিলেন বিশ্বের পাঁচ বড় নেতা। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বিডেন, ব্রিটেনের রাজা চার্লস ও প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক, ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ, কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো এবং ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি ৬ জুন ফ্রান্সে পৌঁছেছেন।

অনুষ্ঠান শেষ হওয়ার আগেই ব্রিটেনে ফিরে আসেন ঋষি সুনক। এরপরই সমালোচনার মুখে পড়তে শুরু করেন তিনি। এবার এর জন্য ক্ষমা চেয়েছেন সুনক। আসলে আগামী ৪ জুলাই ব্রিটেনে নির্বাচন হতে চলেছে। এই কারণে, তাকে একটি সাক্ষাৎকার দিতে হয়েছিল এবং তাই তিনি অনুষ্ঠান থেকে তাড়াতাড়ি ফিরে আসেন।

ডি-ডে কি?
1944 সালের 5 জুন রাত। ফরাসি শহর নরম্যান্ডিতে, সমুদ্রের ঢেউ শান্ত ছিল এবং পূর্ণিমা পূর্ণ মহিমায় ছিল। আমেরিকা, ব্রিটেন এবং ফ্রান্সের 1,60,000 এরও বেশি সৈন্য নরম্যান্ডিতে উপস্থিত নাৎসি সৈন্যদের আক্রমণ করার প্রস্তুতি নিচ্ছিল।

কিন্তু হঠাৎ ঝড় এলো। সব প্রস্তুতি ভেস্তে গেল। আমেরিকান সেনাবাহিনীর সুপ্রিম কমান্ডার ডোয়াইট আইজেনহাওয়ার তার কৌশল পরিবর্তন করতে বাধ্য হন। আমেরিকান সৈন্যরা সারাদিন অপেক্ষা করেছিল। মধ্যরাতের পর হাজার হাজার সৈন্য প্যারাসুটে করে নরম্যান্ডির সমুদ্র সৈকতে অবতরণ করে। সকাল পর্যন্ত নাৎসি সৈন্যরা বুঝতেও পারেনি যে শত্রু বাহিনী এত কাছাকাছি পৌঁছে গেছে।

এটি হালকা হওয়ার সাথে সাথে, আমেরিকান সৈন্যরা সকাল সাড়ে ছয়টায় নাৎসিদের উপর আক্রমণ শুরু করে। ব্রিটেন এবং ফ্রান্সের সৈন্যরা তাকে সমর্থন করতে এসেছিল। নাৎসি সৈন্যরা স্থল, আকাশ ও সমুদ্র তিন দিক থেকে একযোগে আক্রমণ আশা করেনি। তারা সুস্থ হতে পারেনি। এতে প্রায় আট হাজার জার্মান সৈন্য প্রাণ হারায়। একই সময়ে মিত্র দেশগুলোর (আমেরিকা, ফ্রান্স, ব্রিটেন) প্রায় সাড়ে চার হাজার সৈন্য নিহত হয়।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো খবর

ট্রেন্ডিং খবর