প্রভাত বাংলা

site logo
Breaking News
||ইরান যে দেশটিকে হুমকি মনে করে, ইসরাইল তার সাহায্য নিয়েছিল হামলার জন্য|| শীঘ্রই একটি যৌথ ইশতেহার জারি করবে INDIA জোট, এই 7টি বড় প্রতিশ্রুতি দেওয়া হবে||জেনে নিন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সম্পত্তি কত!|| নাগাল্যান্ডের 6টি জেলায় একটিও ভোটার ভোট দেয়নি, পৃথক রাজ্যের দাবি উঠেছে; জেনে নিন কী বললেন মুখ্যমন্ত্রী||‘মানুষ রেকর্ড সংখ্যায় এনডিএ-কে ভোট দিচ্ছে’, প্রথম দফার ভোটের পরে বললেন প্রধানমন্ত্রী মোদি||বাচ্চাদের পর্নোগ্রাফি দেখা অপরাধ নাকি? পড়ুন সুপ্রিম কোর্টের বড় সিদ্ধান্ত||কেএল রাহুলের শক্তিতে চেন্নাইয়ের বিরুদ্ধে লখনউয়ের বড় জয়, 8 উইকেটে পরাজিত সিএসকে||গুজরাটে পাওয়া গেছে সবচেয়ে বড় সাপের ‘বাসুকি’র অবশেষ||ইসরায়েল প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করতে পারে আইসিসি|| লোকসভা নির্বাচনে ভোটের মধ্যে বিজেপিকে ধাক্কা! দল ছেড়ে কংগ্রেসে যোগ দিলেন প্রাক্তন মন্ত্রী

হোলির আগে এই শুভ কাজের বিরতি থাকবে, জেনে নিন এই সময়ে কোন কাজগুলি করা যাবে না

Facebook
Twitter
WhatsApp
Telegram
হোলি

হোলাষ্টক 2024 তারিখ: ফাল্গুন মাসের পূর্ণিমা তিথিতে সারা দেশে হোলিকা দহন হয়, তবে এর আট দিন আগে, ফাল্গুন অষ্টমী থেকে অশুভ সময় শুরু হয়, যা হোলাষ্টক নামে পরিচিত। হোলাষ্টের এই সময়ে কোন শুভ কাজ করা নিষেধ। এটা বিশ্বাস করা হয় যে হোলাষ্টকের সময় করা কোনও শুভ কাজ সফল হয় না এবং আশীর্বাদও নষ্ট হয়ে যায়। এ ছাড়া এই সময়টিকে অসুস্থতা ও দুর্ভোগের অন্যতম বলা হয়। কিন্তু হোলাষ্টকের দিনগুলোকে কেন অশুভ মনে করা হয়? আসুন বিস্তারিতভাবে এর কারণ সম্পর্কে জানি।

হোলাষ্টক কি?
‘হোলি’ এবং ‘অষ্টক’ শব্দের সমন্বয়ে ‘হোলাষ্টক’ শব্দটি তৈরি হয়েছে, যা হোলির আট দিনকে বোঝায়। ধর্মীয় ঐতিহ্য বলে যে বিবাহ, অনুষ্ঠান, মুন্ডন (মাথা মুণ্ডন অনুষ্ঠান), গৃহস্থ করা ইত্যাদি সহ সমস্ত শুভ অনুষ্ঠান করা অশুভ এবং এই আট দিনে এড়ানো উচিত। হোলাষ্টকের সময়, সমস্ত গ্রহ একটি প্রতিকূল অর্থাৎ দুর্বল অবস্থানে থাকে, যার কারণে ভাল কাজের ফলাফল নেতিবাচক হতে পারে।

হোলাষ্টক কখন শুরু হচ্ছে? (হোলাষ্টক 2024 শুরুর তারিখ)
হোলির আট দিন আগে হোলাষ্টক পড়ে। হোলাষ্টক, যা উত্তর ভারতের কিছু রাজ্যে বিবেচনা করা হয়, এই বছর 17 মার্চ 2024 থেকে 24 মার্চ 2024 পর্যন্ত চলবে। ফাল্গুন মাসের শুক্লপক্ষের অষ্টমী তিথি থেকে হোলাষ্টক শুরু হয় এবং এই আট দিনে বিবাহ, বিবাহ, টনসিল, নতুন ব্যবসা এবং যে কোনও নতুন কাজ শুরু করার মতো কোনও শুভ কাজ নিষিদ্ধ। এই বছর, 24 শে মার্চ রাতে হোলিকা দহন অনুষ্ঠিত হবে এবং 25 শে মার্চ রং খেলা হবে।

হোলাষ্টককে কেন অশুভ মনে করা হয়?
জ্যোতিষশাস্ত্র অনুসারে হোলাষ্টকের সময় আটটি গ্রহই অশুভ হয়ে যায়, তাই এই সময়ে গ্রহের অবস্থান শুভ কাজের জন্য শুভ বলে মনে করা হয় না। এই সময়কালে, শুভ কাজে প্রায়ই বাধা আসে। এ ছাড়া আরও বলা হয় যে এই গ্রহগুলির দুর্বলতার কারণে ব্যক্তির সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষমতাও কমে যায়, যার কারণে ব্যক্তি তার স্বভাব-বিরুদ্ধ সিদ্ধান্ত নিতে শুরু করে।

জনপ্রিয় পৌরাণিক কাহিনী অনুসারে, হোলির আট দিন আগে, হিরণ্যকশ্যপ তাঁর পুত্র প্রহ্লাদকে ভগবান বিষ্ণুর প্রতি ভক্তি ভাঙতে নানাভাবে নির্যাতন করেছিলেন। সেই থেকে এই আট দিনকে নির্যাতনের দিন হিসেবে গণ্য করা হয়। হোলাষ্টকের সময়, গ্রহগুলি অশুভ প্রভাব ফেলে, তাই বিবাহ, মুন্ডন, গৃহস্থালী ইত্যাদির মতো শুভ অনুষ্ঠান না করার এবং নতুন বিনিয়োগ করা থেকে বিরত থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়।

হোলাষ্টকে কি হয়?
হোলাষ্টক শুরু হলেই মানুষ উজ্জ্বল রঙের কাপড় দিয়ে গাছের ডাল সাজাতে শুরু করে। প্রত্যেক ব্যক্তি গাছের ডালে কাপড়ের টুকরো বেঁধে মাটিতে পুঁতে দেয়। কিছু গ্রামে হোলিকা দহনে এই কাপড়ের অবশিষ্টাংশ পোড়ানোর প্রথা রয়েছে।

এছাড়া ফাল্গুন শুক্লপক্ষ অষ্টমী পালিত হয় হোলাষ্টকের প্রথম দিনে এবং হোলিকা পোড়ানোর স্থান নির্বাচন করা হয়। হোলিকা দহনের জায়গায় মানুষ প্রতিদিন ছোট ছোট কাঠ সংগ্রহ করতে শুরু করে।

হোলাষ্টকের সময় কি করবেন এবং কি করবেন না?
হোলাষ্টকের সময় পূজার বিশেষ গুরুত্ব রয়েছে। এই আট দিন জপ ও তপস্যা করতে হবে। হোলাষ্টকের আচারের মধ্যে রয়েছে ভগবান বিষ্ণু এবং আপনার প্রিয় দেবতাদের পূজা করা। এতে করে ঘরে সুখ, শান্তি, ঐশ্বর্য ও সমৃদ্ধি আসে।

হোলাষ্টকের সময় একজন অভাবীকে সাহায্য করা এবং যুবক ও প্রবীণদের সম্মান করা উচিত। হোলাষ্টকের সময় হিরণ্যকশ্যপ তার ছেলে প্রহ্লাদকে কষ্ট দিয়েছিলেন। এমতাবস্থায় বড়দের সম্মান করা উচিত এবং ছোটদের স্নেহ করা উচিত। এতে সম্মান ও প্রতিপত্তি বাড়ে।

হোলাষ্টকের সময় প্রতিদিন ভগবান রাম ও কৃষ্ণ বাসুদেবের পূজা করুন। তারপর তাদের উপর আবির গুলাল লাগিয়ে শ্রী সূক্ত পাঠ করুন।

হোলাষ্টকের সময় মহামৃত্যুঞ্জয় মন্ত্র দিয়ে প্রতিদিন ভগবান ভোলেনাথের পূজা করতে হবে। এতে করে সমস্ত শারীরিক ও মানসিক রোগ, দোষ-ত্রুটি দূর হয়।

হোলাষ্টকের সময় বিয়ে, গৃহস্থালি, নামকরণ, মাথা মুণ্ডন ইত্যাদি একেবারেই করা উচিত নয়। এই সময়ের মধ্যে এ ধরনের কোনো কাজ করা থেকে বিরত থাকুন।

হোলাষ্টকের সময় জমি ও বাড়ির লেনদেন এড়িয়ে চলুন। যেকোনো ভূমিপূজন, বুকিং এবং প্রিপেমেন্ট এড়িয়ে চলুন। এতে করে ক্ষতি সম্ভব বলে মনে করা হয়।

হোলাষ্টকের সময় যজ্ঞ, হবনের মতো ধর্মীয় অনুষ্ঠান এড়িয়ে চলুন। হোলাষ্টকের আচারে বাধা আছে, তাই যজ্ঞ ইত্যাদি করা উচিত নয়।

হোলাষ্টকের সময় ব্যবসা-বাণিজ্য শুরু হয় না। এই সময়ে শুরু করা ব্যবসায় ক্ষতির সম্ভাবনা বাড়ে।

ভারত এবং বিদেশের সর্বশেষ খবর, আপডেট এবং বিশেষ গল্প পড়ুন এবং নিজেকে আপ-টু-ডেট রাখুন, Google NewsX (Twitter), Facebook-এ আমাদের অনুসরণ করুন, https://prabhatbangla.com/

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো খবর

ট্রেন্ডিং খবর