প্রভাত বাংলা

site logo
Breaking News
||Odisha CM Oath Ceremony : 24 বছর পর নতুন মুখ্যমন্ত্রী পেল ওড়িশা, শপথ নিলেন মোহন মাঝি||Daily Horoscope: : বৃহস্পতি নক্ষত্রের পরিবর্তনের কারণে, মেষ, কর্কট এবং তুলা রাশির জাতকদের জন্য সম্পদ বৃদ্ধির সম্ভাবনা থাকবে||শাহবাজ সরকারের সঙ্গে আলোচনার জন্য প্রস্তুত ইমরান খান|| টিএমসি নেতা সোহম চক্রবর্তীর অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে মারধরের মামলায় হাইকোর্টে রেস্তোরাঁর মালিক||গঙ্গা স্নানের সময় এই ভুলগুলি করবেন না, ঘরে দারিদ্র্য আসবে, পাপের অংশীদার হতে পারেন||মহেশ নবমী তারিখ 2024: জুন মাসে এই দিনে মহেশ নবমী পালিত হবে, জেনে নিন তারিখ, শুভ সময় এবং তাৎপর্য||মহাভারতের কথাঃ ভীম মৃত্যুর কারণে নয়… তাহলে দুর্যোধন মারা গেলেন কিভাবে?||24 ঘন্টার মধ্যে হিজবুল্লাহ কমান্ডারের মৃত্যুর প্রতিশোধ, ইসরায়েলে 200টি রকেট নিক্ষেপ||কাউকে না বলে X-এর যেকোনো পোস্টে লাইক দিন; আসছে আশ্চর্যজনক বৈশিষ্ট্য||মোদী মন্ত্রিসভার 80% মন্ত্রী স্নাতক বা অধিক শিক্ষিত, 11 জন মন্ত্রী দ্বাদশ পাস; 39% বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা

Ration Scam : বাকিবুর অফিসে আসতেন, প্রায় ১০ ঘণ্টা পর বালুর সহকারী অমিতের দাবি

Facebook
Twitter
WhatsApp
Telegram
অমিত

রেশন ‘দুর্নীতি’ মামলায় জড়ানো রাজ্যের বনমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক ওরফে বালুর সহকারী অমিত দে বলেছেন যে ব্যবসায়ী বাকিবুর রহমান মন্ত্রীর অফিসে আসতেন। তবে অমিত দাবি করেছেন, তিনি নিজে কোনো দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত নন।

শুক্রবারের পর শনিবারও তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডেকেছে ইডি। তিনি সিজিও কমপ্লেক্সেও উপস্থিত ছিলেন। প্রায় 10 ঘন্টা ধরে জিজ্ঞাসাবাদ চলে। ইডি সূত্রে খবর, অমিতের মোবাইল ফোন থেকে অনেক তথ্য পাওয়া গেছে। রাত সাড়ে আটটার দিকে ইডি অফিস থেকে বেরিয়ে যান তিনি।

সিজিও কমপ্লেক্সের বাইরে সাংবাদিকরা অমিতকে ঘিরে ফেলেন। তাকে জিজ্ঞেস করা হলো, আপনি কি বাকিবুরকে চেনেন? তিনি কি মন্ত্রীর বাড়িতে গিয়েছিলেন?” অমিত জবাব, “আমি জানতাম। তিনি বাড়িতে আসেননি। অমিত আরও বলেন, আমি দুর্নীতির বিষয়ে কিছুই জানি না। আমাকে এ বিষয়ে জিজ্ঞাসাও করা হয়নি। আমাকে জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল যে আমি কিছু জানি কিনা কারণ আমি তার সাথে থাকি। আমি যতদূর জানি, কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি।

জ্যোতিপরির প্রাক্তন সহকারী অভিজিৎ দাস এবং অমিত শনিবার ইডি অফিসে যান। তাঁর বাড়ি থেকে মেরুন ডায়েরি উদ্ধার করা হয়েছে, যা ইডি-র তদন্তে বেরিয়ে এসেছে। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে অভিজিৎ সিজিও ছেড়ে চলে যান।

সল্টলেকে জ্যোতিপ্রীর বাড়িতে তল্লাশি ছাড়াও বৃহস্পতিবার নাগেরবাজারে অমিতের তিনটি ফ্ল্যাটেও অভিযান চালায় ইডি আধিকারিকরা। তিনটি ফ্ল্যাটই তখন বন্ধ ছিল। স্ত্রী, বৃদ্ধা মা ও সন্তানদের সঙ্গে ছুটি কাটাতে পুরী গিয়েছিলেন অমিত। ফলে তিনটি ফ্ল্যাটের কোনওটিতেই ঢুকতে পারেননি কেন্দ্রীয় সংস্থার তদন্তকারীরা। গেটের বাইরে পাহারা দিচ্ছিল কেন্দ্রীয় বাহিনী। ইডিও অপেক্ষা করছিলেন। অবশেষে ভুবনেশ্বর থেকে বিমানে কলকাতায় ফিরে আসেন অমিত। অমিতের পরিবারকে বিমানবন্দর থেকে গাড়িতে করে বাড়িতে নিয়ে আসে ইডি। ফ্ল্যাটের দরজা খুলে গেল। একটি নতুন অনুসন্ধান শুরু হয়.

জ্যোতিপরির সহকারী অমিতের নাগেরবাজারে দুটি অ্যাপার্টমেন্টে মোট তিনটি ফ্ল্যাট রয়েছে। এর মধ্যে একটি অ্যাপার্টমেন্টের নাম ‘ভালবাসা’। অপরজনের নাম ‘পারুল’। দুটি অ্যাপার্টমেন্টের মধ্যে দূরত্ব 500-600 মিটার। তবে অমিত আর পারুলের ফ্ল্যাটে থাকে না। ‘ভালবাসা’ অ্যাপার্টমেন্টের দুটি ফ্ল্যাটে থাকেন তিনি। প্রায় 18 ঘণ্টা ধরে সেখানে তল্লাশি চালায় ইডি। এরপর শুক্রবার ইডি অফিসে হাজির হন অমিত। রাতে সেখান থেকে বার। এর পর শনিবার তাঁকে ফের তলব করে ইডি।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো খবর

ট্রেন্ডিং খবর