প্রভাত বাংলা

site logo
Breaking News
||বিধায়ক তাপসকে জেরা করতে সিবিআই প্রস্তুত, সত্য জানতে চায় আদালত||সৌদিতে ওমরাহ করতে যাওয়া যাত্রী উল্টে ২০ নিহত, ২৯ আহত||‘অযোগ্য রাহুল গান্ধী নয় অযোগ্য গণতন্ত্র’, বিজেপির বিরুদ্ধে কটাক্ষ করলেন অজয় ​​মাকেন||রাহুল গান্ধী মামলায় আমেরিকার নজর, বলেছে- মত প্রকাশের স্বাধীনতা প্রয়োজন||সরকারি বাংলো খালি করার নোটিশের ওপর রাহুল গান্ধীর উত্তর-আদেশ অনুসরণ করব||উত্তর কোরিয়া সৈন্যদের কাছ থেকে 653 গুলি নিখোঁজ, পুলকডাউন জারি করেছেন স্বৈরশাসক কিম||মিশরে একসাথে পাওয়া গেছে 2000 ভেড়ার মমি , এর কাহিনী কি খুব অদ্ভুত?||কর্ণাটকের বিজেপি বিধায়ক গ্রেফতার , জামিনের আবেদন খারিজ করেছে হাইকোর্ট||উত্তর-পূর্ব জয়ের পর নার্ভাস বিরোধীরা বিজেপি সাংসদদের বললেন প্রধানমন্ত্রী মোদি||উমেশ পাল অপহরণ মামলায় দোষী সাব্যস্ত আতিক আহমেদ, কিছুক্ষণের মধ্যে সাজা ঘোষণা করবে সাংসদ-বিধায়ক আদালত

এমপির বালাঘাটে প্রশিক্ষণার্থী বিমান বিধ্বস্ত,. দগ্ধ হয়ে দুই পাইলটের মৃত্যু

Facebook
Twitter
WhatsApp
Telegram
প্রশিক্ষণার্থী

Trainee aircraft crash : শনিবার বিকেলে মধ্যপ্রদেশের বালাঘাটে একটি প্রশিক্ষণার্থী বিমান বিধ্বস্ত হয়। বিমানটিতে একজন পাইলট এবং একজন প্রশিক্ষণার্থী পাইলট ছিলেন। দুজনেই জীবন্ত পুড়ে মারা যান। আমেঠি থেকে একটি দল রবিবার এখানে পৌঁছাবে, যারা বিমান দুর্ঘটনার তদন্ত করবে।

বালাঘাট জেলার কির্ণপুরের ভাক্কুটোলা পাহাড়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে। মহারাষ্ট্রের গোন্দিয়া জেলার বিরসি এয়ারস্ট্রিপ থেকে বিমানটি উড্ডয়ন করেছিল। এতে হিমাচল প্রদেশের বাসিন্দা পাইলট (প্রশিক্ষক) মোহিত ঠাকুর এবং গুজরাটের বাসিন্দা প্রশিক্ষণার্থী পাইলট বি. মহেশ্বরী জাহাজে ছিলেন। উড্ডয়নের প্রায় 15 মিনিট পরে, বিমানটি পাহাড়ে বিধ্বস্ত হয়। এর পর আগুন ধরে যায় এবং এতে থাকা দুই পাইলটই দগ্ধ হয়ে মারা যান।

তদন্তের জন্য উত্তরপ্রদেশের আমেঠি থেকে একটি দল আসবে।

দুপুর সাড়ে ৩টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। ভাক্কুটোলার পাহাড় থেকে ধোঁয়া উঠতে দেখে গ্রামবাসী সেখানে পৌঁছে দেখেন বিমানটি বিধ্বস্ত হয়েছে। দুটি পাথরের মধ্যে একটি মৃতদেহ পুড়তেও দেখেন গ্রামবাসীরা। এই দুর্ঘটনার বিষয়ে, আমেঠির ইন্দিরা গান্ধী ন্যাশনাল ফ্লাইট একাডেমির মিডিয়া ইনচার্জ, রামকিশোর দ্বিবেদী জানিয়েছেন যে আনুষ্ঠানিকভাবে একটি তদন্ত দল আমেঠি থেকে 19 মার্চ বিরসি পৌঁছবে এবং এই দুর্ঘটনার তদন্ত করবে। বলা হচ্ছে, বিধ্বস্ত বিমান ডায়মন্ড-41টি রায়বেরেলির।

ঘটনাস্থলে পৌঁছেছেন আইজি ও এসপি

গ্রামবাসীদের মতে, তারা কির্ণপুর ও কাকোডির কাছে বিমান উড়তে দেখেছিল। এরপর পাহাড় থেকে ধোঁয়া উঠতে দেখেন ভাক্কুটোলার গ্রামবাসীরা। যেহেতু এই এলাকা নকশাল প্রভাবিত। এলাকাটি বন ও পাহাড়ি। সে কারণেই নিরাপত্তা বাহিনীর পক্ষে তাৎক্ষণিকভাবে এখানে পৌঁছানো সহজ ছিল না। তবে দুর্ঘটনার পর আইজি সঞ্জয় কুমার ও পুলিশ সুপার সমীর সৌরভ পুলিশ বাহিনী নিয়ে এখানে পৌঁছেছেন। বাজপাখি এবং সিআরপিএফ জওয়ানরাও সন্ধ্যা নাগাদ এখানে পৌঁছেছেন। সেনারা কোনোমতে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। পরে পুলিশ নিহতদের মরদেহ উদ্ধার করে।

যেখানে বিমানটি পড়েছে, তার দুই পাশে পাহাড়

বালাঘাট জেলায় যেখানে বিমানটি পড়েছিল, তার দুই পাশে পাহাড়। পাহাড়ের মাঝখানে 100 ফুট গভীর খাদে বিমানটির ধ্বংসাবশেষ পাওয়া গেছে। ঘন জঙ্গল ও পাহাড়ি এলাকার কারণে উদ্ধারকারী দল ও কর্মকর্তাদেরও এখানে পৌঁছাতে অসুবিধা হয়। দুর্ঘটনাস্থলে পৌঁছতে প্রায় 7 কিলোমিটার জঙ্গল ও পাহাড়ি পথ পাড়ি দিতে হয়েছে পায়ে হেঁটে।

কীভাবে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে তা স্পষ্ট নয়

কীভাবে বিমানটিতে আগুন লেগেছে তার কারণ এখনও স্পষ্ট নয়। বিমানের ত্রুটি এবং পাহাড়ে আছড়ে পড়ায় এটি বিধ্বস্ত হয়েছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। বিমানটি বিস্ফোরিত হয়ে আগুন ধরে যায়।

এর আগেও বিমান দুর্ঘটনার শিকার হয়েছেন

মহারাষ্ট্রের গোন্দিয়ার বিরসি এয়ারস্ট্রিপে পাইলটদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। অনেক সময় এখান থেকে মধ্যপ্রদেশের সীমান্তের দিকে প্লেন উড়ে যায়। এর আগে 2017 সালের এপ্রিলে, বালাঘাট জেলার খয়েরলাঞ্জি তহসিলের লাভানি পুর গ্রামে একটি প্রশিক্ষণার্থী বিমান বিধ্বস্ত হয়েছিল। এরপর এটিসির (এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোল) সঙ্গে বিমানটির যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এরপর গাছ ও রোপওয়ের টাওয়ারের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে নদীতে পড়ে যায় বিমানটি।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো খবর