প্রভাত বাংলা

site logo
Sachin Tendulkar

Sachin Tendulkar : সাফল্যের পাশাপাশি ব্যর্থতা উদযাপন করা প্রয়োজন বলেছেন শচীন – খেলাধুলা কখনও হাল ছেড়ে না দেওয়ার চেতনা শেখায়

Sachin Tendulkar : মাস্টার ব্লাস্টার শচীন টেন্ডুলকার বলেছেন, খেলাধুলা আমাদের দেশের অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ। না জানি কত খেলার জন্ম হয়েছে আমাদের দেশে। প্রতিটি পদক্ষেপে খেলা পরিবর্তনের খেলা দাবার উদ্ভব ভারত থেকে। এখন অনেক ভারতীয় এই খেলায় দেশকে গর্বিত করছে। একইভাবে, অন্যান্য দেশের তৈরি খেলাধুলায় ভারতীয় দলগুলির একটি অনন্য পারফরম্যান্স রয়েছে।

ক্রিকেট, হকি, কাবাডি, সেলিং, ব্যাডমিন্টন, বিলিয়ার্ডসেও ভারত বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হওয়ার কৃতিত্ব অর্জন করেছে। এসব কারণে এখন শিশুরা যখন বাড়ির বাইরে গিয়ে বন্ধুদের সঙ্গে রাস্তায় খেলাধুলা করে, তখন তাদের অভিভাবকরা তাদের সন্তানদের বাড়ি থেকে খেলা দেখে উৎসাহ দেন। এই প্রক্রিয়ায় জয় বা হার কোন ব্যাপার না। সন্তান জিতলে বাবা-মা তার সাথে উদযাপনে যোগ দেয় এবং সে হেরে গেলে তারা তাদের সন্তানকে সান্ত্বনা দেয়। তারপর সেই শিশুটি খেলার প্রতি আগের মতই উৎসাহী থাকে।

আন্তর্জাতিক খেলোয়াড়দেরও হার না মানার মনোভাব আছে। একজন খেলোয়াড়ের সাফল্য পরিমাপ করা হয় সে কতবার জিতেছে তার দ্বারা। কিন্তু, পরাজয়ও তার জীবনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। খেলাধুলা নিজেই অধ্যবসায় এবং সংকল্প শেখায়। গত বছর ভারত একটি নতুন খেলা দেখেছে। রুপা রানী, পিংকি, নয়নমনি এবং লাভলী চৌবে লন বলের প্রতি ভারতীয়দের আগ্রহ জাগিয়েছিলেন।

এই দলটি কমনওয়েলথে ভারতের হয়ে লন বলে প্রথম সোনা জিতেছে। সমাজ জয়কে গুরুত্ব দিয়েছে, কিন্তু কারো পরিশ্রম ও সংগ্রামের প্রতি সমান মনোযোগ দেওয়া আমাদের দায়িত্ব। জেতার জন্য করা প্রচেষ্টার জন্য মানুষের প্রশংসা করা প্রয়োজন। চানু, সিন্ধু, বজরং, মেরি কম ও কোহলি হয়তো ভালো খেলবেন না। তবে তারা ফিরে এসে নিজেদের সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করবে।

Read More : ICC Awards : সূর্যকুমার যাদব 2022 সালের সেরা T20 পুরুষ ক্রিকেটার হয়েছেন, অস্ট্রেলিয়ার তাহিলা ম্যাকগ্রা মহিলাদের মধ্যে পুরস্কার পেয়েছেন

আমাদের চেষ্টা হওয়া উচিত যে ভালো খেলেন তারাই যেন তৃণমূল পর্যায়ে স্বীকৃতি পায়। তখন তাদের এমন পরিকাঠামো দিতে হবে যেখানে তারা শিখতে পারবে। ইতিবাচক মনোভাব নিয়ে ব্যর্থতাকে মেনে নেওয়ার ক্ষমতা এই খেলোয়াড়দের জিততে শিখতে হবে। প্রতিটি প্রজাতন্ত্র দিবসে, আমরা আমাদের সংবিধান এবং এর দ্বারা প্রদত্ত অধিকারের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে সমবেত হই। আসুন আমরা এবারও একসাথে বছরের যাত্রা উদযাপন করি, যখন আমরা অনেক বাধা সত্ত্বেও এগিয়ে গিয়ে এবং চেষ্টা করে জয়ী হই। আসুন আমরা এমন একটি আগামীকাল কামনা করি যেখানে আমরা ব্যর্থতাকে মূল্য দিতে শিখি। নিজের এবং দেশের জন্য সর্বোত্তম অর্জনের চেষ্টা করে এগিয়ে যান।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *