প্রভাত বাংলা

site logo
দিল্লি পুলিশ

স্যুটকেসে পাওয়া শরীরের অংশ কি শ্রাদ্ধর ? তদন্তের জন্য ফরিদাবাদে পৌঁছেছে দিল্লি পুলিশ

দিল্লি পুলিশের দলও ফরিদাবাদে পৌঁছেছে সুরাজকুণ্ডে পাওয়া মহিলার দেহের অংশ পরীক্ষা করতে। দিল্লি পুলিশ সন্দেহ করছে যে এই শরীরের অঙ্গগুলিও শ্রাদ্ধের অন্তর্গত হতে পারে। সেই কারণেই ফরেনসিক দলকে সঙ্গে নিয়েছে দিল্লি পুলিশ। বৃহস্পতিবার ফরিদাবাদ পুলিশ দেহের এই অংশগুলি উদ্ধার করেছে। যেহেতু শনাক্ত করা যায়নি। তাই ফরিদাবাদ পুলিশ আশেপাশের সব জেলার পুলিশকে এই তথ্য দিয়েছে। এরপর থেকে সব জেলার পুলিশ নিজ নিজ জেলা থেকে নিখোঁজদের সঙ্গে দেহের অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ মেলাচ্ছে।

দিল্লি পুলিশের আধিকারিকদের মতে, শ্রাদ্ধের শরীরের অনেক অংশ এখনও উদ্ধার করা যায়নি। পুলিশ ওই অংশগুলো খুঁজছে। এদিকে, বৃহস্পতিবার ফরিদাবাদ পুলিশ জানিয়েছে যে একটি স্যুটকেসে এক মহিলার দেহের অংশ পাওয়া গেছে। এমন পরিস্থিতিতে দেহের অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ পরীক্ষা করতে দিল্লি পুলিশের দলকে ফরিদাবাদে পাঠানো হচ্ছে। ফরিদাবাদে পৌঁছে যাওয়া ফরেনসিক দলও শরীরের এই অংশগুলির নমুনা নেবে, যাদের ডিএনএ পরীক্ষা করা হবে। এরপর শ্রদ্ধার বাবার ডিএনএ রিপোর্টের সঙ্গে এর রিপোর্ট মিলবে।

পুলিশ জানিয়েছে, ফরিদাবাদে একটি স্যুটকেসে পাওয়া শরীরের এই অংশটি কোমরের নীচে। মৃতদেহ থেকে মহিলার কিছু কাপড়ও উদ্ধার করা হয়েছে। পুলিশ কর্মকর্তাদের মতে, শ্রদ্ধার পোশাকও পরীক্ষা করা হচ্ছে। তবে ফরিদাবাদে পাওয়া শরীরের অঙ্গ-প্রত্যঙ্গগুলো দেখতে তাজা। যদিও ছয় মাস আগে শ্রদ্ধাকে খুন করা হয়েছিল। এমন পরিস্থিতিতে শরীরের এই অঙ্গ-প্রত্যঙ্গগুলো মিলে যাওয়ার সম্ভাবনা কম।

Read More : শুধু লাচিত বোরফুকনই নয়, জেনে নিন এই ৭ নায়ককে যাঁরা পেয়েছেন জাতীয় স্বীকৃতি!

রোহিণী হাসপাতালে পলিগ্রাফ করা হবে
শ্রদ্ধা খুনের আসামি আফতাবের পলিগ্রাফ টেস্টের তৃতীয় অধিবেশন হবে আজ। শুক্রবার রোহিণীতে এফএসএল অফিসে এই পরীক্ষা হবে। সূত্রের কথা যদি বিশ্বাস করা হয়, গতকাল অর্থাৎ বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত দ্বিতীয় অধিবেশনে যেখানে আফতাব অসুস্থ ছিলেন, সেখানে তিনি গোলমুখে প্রতিটি প্রশ্নের উত্তর দিয়েছিলেন। এ কারণে আজ তার তৃতীয় অধিবেশন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। পুলিশ জানায়, আফতাব আজই পুলিশ রিমান্ডে রয়েছে। শনিবার তাকে আদালতে হাজির করে জেলহাজতে পাঠানো হবে।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *