প্রভাত বাংলা

site logo
এনআইএ

ছুরি, লোহার রড ও কাস্তে দিয়ে হত্যার ট্রেনিং দেওয়া হচ্ছিল, পিএফআই মামলায় বড় প্রকাশ এনআইএ এর

পিএফআই-এর বিরুদ্ধে এনআইএ অ্যাকশন: সন্ত্রাসবাদে আক্রমণ করে, জাতীয় তদন্ত সংস্থা (এনআইএ) আজ অনেক রাজ্যে পপুলার ফ্রন্ট অফ ইন্ডিয়া (পিএফআই) এর প্রাঙ্গনে অভিযান চালিয়ে 100 জনেরও বেশি লোককে গ্রেপ্তার করেছে। কারাতে ট্রেনিং সেন্টারের আড়ালে সন্ত্রাসী বানানোর প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছিল বলে এ ঘটনায় একটি বড় তথ্য উঠে এসেছে। নিজামবাদ থেকে গ্রেফতার কারাতে শিক্ষক আবিদুল কাদেরের স্বীকারোক্তির পর এ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

জানলে অবাক হবেন, কারাতে শেখানোর আড়ালে এই লোকেরা সন্ত্রাসী বানানোর ট্রেনিং দিচ্ছিল। নন-চাক, ছুরি, লোহার রড ও কাস্তে ব্যবহার করে হত্যার প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছিল। এনআইএ নথিভুক্ত পিএফআই মামলায় একটি বড় প্রকাশ ঘটেছে। উত্তরপ্রদেশ এবং বিহারের পাশাপাশি, কর্ণাটক, কেরালা, তেলেঙ্গানা, আসাম এবং দিল্লি সহ আরও অনেক রাজ্যে 40 টি স্থান রয়েছে যেখানে NIA এবং ED একসাথে অভিযান চালিয়েছে।

বাড়ির ছাদে চালু হয়েছে ট্রেনিং সেন্টার

এমতাবস্থায় জানা গেছে, পিএফআই নেতাদের নির্দেশে আব্দুল কাদের তার বাড়ির ছাদে একটি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র তৈরি করেছিলেন। এই প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে বিভিন্ন ব্যাচে ৫ দিনের সন্ত্রাসী প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। এজন্য প্রতিমাসে আব্দুল কাদেরকে মোটা অংকের টাকা দিত পিএফআই। এখানে অস্ত্র প্রশিক্ষণ দেওয়ার পাশাপাশি বিদ্বেষমূলক বক্তব্যের মাধ্যমে যুবকদের মগজ ধোলাই করা হয়।

Read more : মসজিদে আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবত: মুসলিম বুদ্ধিজীবী ও ইমামদের সঙ্গে বৈঠক

একটি নির্দিষ্ট সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে প্রশিক্ষণের প্ররোচনা

জিজ্ঞাসাবাদে আব্দুল কাদের জানান, প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে একটি বিশেষ সম্প্রদায়কে টার্গেট করে যুবকদের উসকানি দেওয়া হয়। এর জন্য একটি নির্দিষ্ট ধর্মের যুবকদের একত্রিত করে অন্য ধর্মের লোকদের বিরুদ্ধে উসকানি দেওয়া হয়। আবদুল কাদের আরও জানান, প্রতি মাসে সারাদেশের মানুষের কাছ থেকে অনুদানের মাধ্যমে বিপুল পরিমাণ নগদ অর্থ সংগ্রহ করা হয়। আবদুল কাদেরের নির্দেশে আরও চার পিএফআই নেতাকে গ্রেফতার করা হয়।

Leave a Comment

Your email address will not be published.