প্রভাত বাংলা

site logo
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

আড়াই বছর পরে আবার চালু টালা ব্রিজ , দূর থেকে উদ্বোধন করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

আড়াই বছরের অপেক্ষা শেষ। পুজোর আগে উত্তর কলকাতাবাসীর জন্য স্বস্তি। টালা ব্রিজ খুলে দেওয়া হয়। বৃহস্পতিবার বিকেলে নবনির্মিত টালা সেতুর উদ্বোধন করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিকেল 5টা 49 মিনিটে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দূর থেকে এর উদ্বোধন করেন। উদ্বোধনে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “এটি পুজোর আগে একটি উপহার।”

বরাহনগর বা সিঁথি জংশন থেকে উত্তর কলকাতায় এসে আর বেলগাছিয়া সেতুর যানজট পার হতে হয় না। পুজোর আগে টালা সেতু চালু হলে যানজট কমবে বলে আশা করা হচ্ছে। উত্তর কলকাতা এবং উত্তর শহরতলির পথে তালা সেতু একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। মেয়র ফিরহাদ হাকিম বলেন, আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে এই নতুন সেতু তৈরি হওয়ায় আগের থেকে অনেক মজবুত হয়েছে।

প্রসঙ্গত, মাঝেরহাট ব্রিজ ভেঙে পড়ার পর সেপ্টেম্বর 2018 সালে তালা সেতুর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়েছিল। 2019 সালে পুজোর আগে, সরকারি সংস্থা রাইটস স্বাস্থ্য পরীক্ষার রিপোর্ট জমা দেয় এবং বলে যে টালা ব্রিজ ভেঙে নতুন নির্মাণ করা দরকার। সেতু বিশেষজ্ঞ ভি কে রায়নাও একই পরামর্শ দিয়েছেন। সেই বছর পুজোর আগে টালা ব্রিজ যান চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়। 2020 সালের ফেব্রুয়ারিতে, টালা ব্রিজ ভাঙার কাজ শুরু হয়। ওই বছরের এপ্রিলে সেই কাজ শেষ হয়।

Read More : পুজোর আগের দিন 62 লক্ষেরও বেশি রেশন কার্ড নিষ্ক্রিয় করার সিদ্ধান্ত রাজ্য সরকারের

লারসেন অ্যান্ড টুবরো লিমিটেড আগস্টে সেতুটির নির্মাণ কাজ শুরু করে। চলতি বছরের জানুয়ারিতে গণপূর্ত দফতর জানায়, এপ্রিলে তালা সেতু চালু করা হবে। সেই সময়সীমা পেরিয়ে গেলেও কাজ শেষ হয়নি। মোট 468 কোটি টাকা ব্যয় করে 750 মিটার দীর্ঘ টালা সেতুটি ফিরে পেয়েছে নগরবাসী। নবনির্মিত সেতুর ‘ওয়াকিং বে’ পথচারীরা ব্যবহার করতে পারেন। এ দিকে সেতু নির্মাণের দায়িত্বপ্রাপ্ত সংস্থার কর্মীদের প্রশ্ন, পুজোর আগে উদ্বোধনের সময় সেতুর কাজ কি তাড়াহুড়ো করা হয়েছিল? তবে সেতুর স্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখেই উদ্বোধনের পর যান চলাচলের বিষয়ে যেকোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে নাভান্ন সূত্রে জানা গেছে।

Leave a Comment

Your email address will not be published.