প্রভাত বাংলা

site logo
মহালয়া

পিতৃপুরুষদের তুষ্ট করার শেষ সুযোগ, মহালয়ায় করুন এই সহজ উপায়, পাবেন আশীর্বাদ

পিতৃপক্ষের শেষ দিনটি সর্বপিতৃ অমাবস্যা নামে পরিচিত। এদিন শ্রাদ্ধানুষ্ঠানের পর পূর্বপুরুষদের বিদায় জানানো হয়। শাস্ত্র মতে সর্বপিতৃ অমাবস্যার দিনে তর্পণ, পিণ্ডদান ইত্যাদি করলে পূর্বপুরুষ প্রসন্ন হন ও পরিবারের সদস্যদের সমস্ত দুঃখ দূর করেন। হিন্দু পঞ্জিকা অনুযায়ী ২৫ অক্টোবর সর্বপিতৃ অমাবস্য়া। এদিন পঞ্চবলি অর্থাৎ কাক, গোরু, কুকুর, পিঁপড়ে ও দেবতাদের ভোজনের এক এক অংশ প্রদান করা হয়। পঞ্চবলির মাধ্যমে পূর্বপুরুষরা তৃপ্ত হন। পিতৃপুরুষদের আত্মাকে তৃপ্ত করতে ও পিতৃদোষ থেকে মুক্তি পেতে মহালয়ার দিনে বিভিন্ন উপায় করা হয়। জেনে নিন।

সর্বপিতৃ অমাবস্যার তিথি

২৫ সেপ্টেম্বর সর্বপিতৃ অমাবস্যা পালিত হবে। কুটুপ মুহূর্ত শ্রাদ্ধ করার উপযুক্ত সময়।

কূটূপ মুহূর্ত- সকাল ১১টা ২৪ মিনিট থেকে দুপুর ১২টা ১২ মিনিট পর্যন্ত। মোট ৪৮ মিনিট সময়।

রোহিনা মুহূর্ত- দুপুর ১২টা ১২ মিনিট থেকে ১টা পর্যন্ত। মোট সময় ৪৮ মিনিট।

অপরাহন কাল- দুপুর ১টা থেকে ৩টে ২৫ মিনিট পর্যন্ত। মোট সময় ২ ঘণ্টা ২৫ মিনিট।

মহালয়ায় কোন উপায়ে পূর্বপুরুষদের তুষ্ট করবেন

১. পিতৃপক্ষের কোনও নির্দিষ্ট তিথিতে তর্পণ বা শ্রাদ্ধ করতে না-পারলে এদিন জলের পাত্রে তিল মিশিয়ে পূর্বপুরুষদের স্মরণ করুন। এই উপায়ে পূর্ব পুরুষরা প্রসন্ন হন এবং পিতৃদোষের ভয় দূর হয়।

২. শাস্ত্র মতে মহালয়ার দিনে দানের বিশেষ মাহাত্ম্য রয়েছে। এ দিন মন্দিরে চাল, নুন, আটা, গুড়, বিউলির ডাল ও ঘি দান করা হয়। এই উপায়ে জীবনে শান্তি বজায় থাকে এবং পিতৃ দোষ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

৩. পিতৃপক্ষের শেষ দিনে ব্রাহ্মণ ভোজনের বিশেষ মাহাত্ম্য রয়েছে। এমন করলে পূর্বপুরুষরা প্রসন্ন হন। সর্বপিতৃ অমাবস্যার দিনে ব্রাহ্মণদের ভোজন করানোর পর সামর্থ্য অনুযায়ী দান-দক্ষিণা দিয়ে বিদায় করুন।

৪. পিতৃপুরুষ এবং পরিবারের শান্তির জন্য গাওয়া ঘিয়ে তৈরি রুটিতে গুড় মিশিয়ে গোরুকে খাওয়ান। এর ফলে সমস্ত ধরনের দোষ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। এ ছাড়াও পালক শাক বা ঘাস খাওয়ালেও সুফল পাওয়া যায়।

Read More : নরকের ১৫টি নগরে কষ্ট ভোগ করে যমপুরী পৌঁছয় আত্মা, চমকে দেবে গরুড় পুরাণের বর্ণনা!

৫. মহালয়ার দিনে অশ্বত্থ গাছের পুজো করার বিশেষ মাহাত্ম্য রয়েছে। এদিন সকালে তাড়াতাড়ি উঠে অশ্বত্থ গাছের তলায় প্রদীপ প্রজ্জ্বলিত করুন। এই উপায় করলে পূর্বপুরুষরা প্রসন্ন হবেন এবং আশীর্বাদ দেবেন। মনে করা হয়, অশ্বত্থ গাছে দেবতাদের পাশাপাশি পূর্বপুরুষরাও বাস করে। এ কারণে শ্রাদ্ধপক্ষের যে কোনও দিন অশ্বত্থ গাছ রোপণ করা উচিত।

Leave a Comment

Your email address will not be published.