প্রভাত বাংলা

site logo
জাহাঙ্গীরপুরী

জাহাঙ্গীরপুরী সহিংসতা: পুলিশের মাঝখানে অবাধে ঘুরে বেড়াত অভিযুক্ত, এখন গ্রেফতার করেছে অপরাধ শাখা

দিল্লির ক্রাইম ব্রাঞ্চ দল শনিবার জাহাঙ্গীরপুরীতে শুরু হওয়া সহিংসতার প্রধান অভিযুক্ত তবরেজকে গ্রেপ্তার করেছে। প্রাপ্ত তথ্যে জানা গেছে, সহিংসতার পর অভিযুক্তরা এলাকায় পুলিশ কর্মকর্তাদের দলে অবাধে ঘুরে বেড়াচ্ছিল। পুলিশও এ বিষয়ে অবগত ছিল না। কিন্তু পুরো বিষয়টি গভীরভাবে তদন্ত করে এখন ধরা পড়েছেন তিনি। জাহাঙ্গীরপুরীর শোভা যাত্রায় পাথর নিক্ষেপের মামলার তদন্তকারী ক্রাইম ব্রাঞ্চ উপরের পদক্ষেপ নিয়েছে।

অভিযুক্তরা করপোরেশন নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন

অনুগ্রহ করে বলুন যে তাবরেজ আগে এআইএমআইএম পার্টির সদস্য ছিলেন। পরে তিনি AIMIM দল ছেড়ে কংগ্রেসে যোগ দেন। বর্তমানে তিনি করপোরেশন নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। পাথর ছোড়ার পর পুলিশের সঙ্গে ঘোরাফেরা করে এলাকায় শান্তি বজায় রাখার কথা বলছিলেন তিনি।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, জাহাঙ্গীরপুরীর পাথর নিক্ষেপে তবরেজের খুব সক্রিয় ভূমিকা ছিল। কিন্তু নিজেকে নিরাপদ রাখতে পুলিশের মধ্যেই লুকিয়ে থাকেন। ঘটনার পর যে ভিডিওগুলো বেরিয়েছে তাতে তাবরেজকে দেখা যায়। প্রথম ভিডিওতে আরও দেখা যায় যে ডিসিপি ঊষা রঙ্গরানি যখন এলাকায় সাংবাদিক সম্মেলন করছিলেন, তখন তিনি মাইকে ওই এলাকায় পুলিশ বাহিনী সরিয়ে দেওয়ার অনুরোধ করছিলেন।

Read More :

দিল্লির দাঙ্গাতেও নাম উঠেছিল

দ্বিতীয় ভিডিওটি জাহাঙ্গীরপুরী থানার বাইরের, যখন গ্রেফতারকৃত অভিযুক্তদের পরিবার থানার বাইরে জড়ো হয়েছিল। এ সময় উভয় সম্প্রদায়ের লোকজন থানার বাইরে মুখোমুখি হয়ে স্লোগান দিতে থাকে। তবরেজ তখন লোকজনকে উসকানি দিয়েছিলেন বলে অভিযোগ রয়েছে। সূত্রের খবর, দিল্লির দাঙ্গায় তাবরেজের নামও উঠেছিল।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *