প্রভাত বাংলা

site logo
দুর্ঘটনা

যমুনা এক্সপ্রেসওয়েতে দুর্ঘটনা, পরিবারের 7 সদস্য নিহত

শনিবার ভোররাতে মথুরার যমুনা এক্সপ্রেসওয়েতে দুর্ঘটনায় একই পরিবারের সাত সদস্য নিহত হয়েছেন। 2 জনের অবস্থা আশংকাজনক। নিহতদের মধ্যে স্বামী-স্ত্রী এবং তাদের দুই ছেলে, দুই পুত্রবধূ ও এক নাতি রয়েছে। গাড়িতে 9 জন ছিলেন। সবাই হারদোইয়ের সান্দিলা এলাকার বাসিন্দা। পুলিশ বলছে, ঘুমের কারণেই এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। সামনে থাকা একটি গাড়ির সঙ্গে ধাক্কা লাগে গাড়িটির। দুর্ঘটনায় গাড়ির সামনের অংশ বেশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। নওঝিল এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

দীর্ঘক্ষণ গাড়িতে আটকে পড়ে ভোগান্তি পোহাতে থাকেন আহতরা
পুলিশ জানিয়েছে, সকালে একজন চালক ডায়াল-112-কে দুর্ঘটনার কথা জানান। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে ক্ষতিগ্রস্ত গাড়ি থেকে আহত 9 জনকে উদ্ধার করে। সংঘর্ষে গাড়ির সামনের অংশ দুমড়ে মুচড়ে যায়। এমতাবস্থায় কাটার দিয়ে গাড়ি কেটে আহতদের উদ্ধার করা হয়। এ লড়াইয়ে আহতরা দীর্ঘক্ষণ গাড়ির মধ্যে আটকা পড়েন।

পুলিশ আহতদের নিকটস্থ হাসপাতালে নিয়ে যায়, যেখানে 7 জনকে মৃত ঘোষণা করা হয়। নিহতদের মধ্যে 2 নারী, 3 পুরুষ ও 1 শিশু রয়েছে। আহত 2 জনকে উচ্চ কেন্দ্রে রেফার করা হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, দুর্ঘটনায় জড়িত গাড়িটি ওয়াগনআর। নম্বর-UP16 হল DB9872৷ এসপি পল্লী জানিয়েছেন, গোটা পরিবার বিয়ের জন্য নয়ডা যাচ্ছিল।

Read More :

গাড়ি আরোহীরা হারদোই থেকে নয়ডা যাচ্ছিল
মথুরায় দুর্ঘটনার শিকার পরিবারটি হারদোইয়ের বাহাদুরপুর-সান্দিলার বাসিন্দা। পুরো পরিবার গাড়িতে করে নয়ডা যাচ্ছিল। পুলিশ জানিয়েছে, রাজেশ, লালু, শ্রীগোপাল, সঞ্জয়, নিশা, চুটকি, নন্দনী, 6 বছরের ধীরজ এবং 3 বছরের কৃষ গাড়িতে ছিলেন। রাজেশ, শ্রী গোপাল এবং সঞ্জয় প্রকৃত ভাই। নিহতদের মধ্যে লাল্লু ও তার স্ত্রী চুটকি, দুই ছেলে রাজেশ ও সঞ্জয়, দুই পুত্রবধূ নিশা ও নন্দনী, 6 বছর বয়সী নাতি ধীরজ রয়েছে। আহত হয়েছে লালুর ছেলে শ্রী গোপাল ও 3 বছরের নাতি কৃষ। মথুরার এই বেদনাদায়ক দুর্ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী যোগী। তিনি আহতদের উন্নত চিকিৎসার জন্য কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *