প্রভাত বাংলা

site logo
সুকান্ত

অমিত শাহর সঙ্গী শুভেন্দু-সুকান্ত

বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার দুদিন রাজ্যে থাকবেন অমিত শাহ। তার সরকারি ও রাজনৈতিক উভয় কর্মসূচি রয়েছে। রাজ্য বিজেপি সভাপতি সুকান্ত মজুমদার এবং বিরোধী নেতা শুভেন্দু অধিকারী সেই সফরে শাহের নিত্যসঙ্গী। বিজেপি সূত্রে খবর, সুকান্ত এবং শুভেন্দু ছাড়াও রাজ্যের দুই সাংসদ, কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী শান্তনু ঠাকুর এবং নিশীথ প্রামাণিক শাহ সরকারী অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে পারেন৷

শাহ যখন রাজ্যে আসছেন, তখন বাঙালি বিজেপি নানা সমস্যায় জর্জরিত। সাংগঠনিক ইস্যুতে যেমন প্রতিবাদ হচ্ছে, তেমনি সংসদীয় দলের সঙ্গে রাজ্য নেতৃত্বের বোঝাপড়া নিয়েও বিতর্ক রয়েছে। এই সফরে শাহ এই দুই ক্ষেত্রে সমাধানের পরামর্শ দিতে পারেন। এ ছাড়া অর্জুন সিং, সৌমিত্র খানসহ দলের আরও কয়েকজন সাংসদকে নিয়ে রাজনৈতিক অঙ্গনে নানা গুঞ্জন রয়েছে। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী শান্তনুকেও সরব হতে দেখা গেছে। কিছু কিছু ক্ষেত্রে দল বা কেন্দ্রীয় সরকারের নীতির বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে কথা বলে নিজেদের অস্বস্তি বাড়াচ্ছেন কেউ কেউ। গত বিধানসভা নির্বাচনের আগে রাজ্যে বিজেপির বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়ে দলের মধ্যে এখনও সমালোচনা চলছে। বিজেপি শিবির মনে করছে শাহ তখন অন্য দলের নেতা নেওয়া সহ বিভিন্ন পদক্ষেপে রাজি হয়েছিলেন। তবে সব সমালোচনার মুখে রাজ্যের দায়িত্বে রয়েছেন কৈলাশ বিজয়বর্গীয়, শিব প্রকাশ-সহ কেন্দ্রীয় নেতারা। ভোটের পতনের পর তারা সেভাবে রাজ্যে আসেনি। শাহও গত এক বছরে বাংলায় পা রাখেননি।

এবার শাহকে পেয়ে দলের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের পাশাপাশি বিদ্রোহীদের বার্তাও পাওয়া যাবে বলে মনে করছেন দলের রাজ্য নেতৃত্ব। গেরুয়া শিবির সূত্রে খবর, সেই কারণেই শাহকে পরিস্থিতি জানাতে সুকান্ত ও শুভেন্দু তাঁর নিত্যসঙ্গী। শাহ নিজেও এটা চেয়েছিলেন বলেও জানা গেছে। শাহ বৃহস্পতিবার দক্ষিণবঙ্গে এবং শুক্রবার উত্তরবঙ্গে একটি সীমান্ত নিরাপত্তা কর্মসূচিতে যোগ দেবেন। এছাড়া শুক্রবার সন্ধ্যায় কলকাতায় একটি সরকারি অনুষ্ঠান রয়েছে। এদিকে বৃহস্পতিবার শিলিগুড়িতে জনসভা এবং শুক্রবার রাজ্য বিজেপির সঙ্গে যৌথসভা। প্রথমে জেলা সভাপতি পর্যায় পর্যন্ত সংগঠনের দায়িত্বপ্রাপ্তদের ডাকা হয়েছে। আর দ্বিতীয়টিতে থাকবেন দলের সব জনপ্রতিনিধিরা।

Read More :

মূলত এই যৌথ বৈঠকের দিকেই তাকিয়ে রয়েছে রাজ্য বিজেপি। সুকান্ত ও শুভেন্দু উভয়েই পদাধিকার বলে এবং জনপ্রতিনিধি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন। তবে তার আগে ঠিক কোথায় সমস্যা এবং সমাধানে কী করা উচিত তা নিয়ে দুজনের সঙ্গে আলোচনা করতে পারেন শাহ। বিজেপি সূত্রে খবর, সে কারণেই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী দু’জনকে সঙ্গ দিতে বলেছেন। বৃহস্পতিবার রাতে শিলিগুড়ির একটি হোটেলে থাকবেন শাহ। সেখানেও, সুকান্ত ও শুভেন্দুর সঙ্গে কথা বলে শুক্রবারের বৈঠকে শাহ তার ‘হোমওয়ার্ক’ শেষ করতে পারেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *