প্রভাত বাংলা

site logo
Breaking News
||পুতিনের বক্তৃতা লেখককে মোস্ট ওয়ান্টেড ঘোষণা||‘মিথ্যা বলা রাহুল গান্ধীর স্বভাব হয়ে গেছে’, কংগ্রেসকে নিশানা বিজেপির||Akhilesh Yadav : ‘কংগ্রেসের উচিত আঞ্চলিক দলগুলিকে এগিয়ে রাখা’, বিজেপিকে হারানোর ফর্মুলা দিলেন অখিলেশ!||26 মার্চ 2023 রাশিফল: আজ নিজেই জেনে নিন আপনার দিনটি কেমন যাবে||Amritpal Singh : যুবকদের টাইগার ফোর্স বানাচ্ছিল পলাতক অমৃতপাল, ডলারের নকল করে ছাপা হয়েছিল খালিস্তানি নোট||Rahul Gandhi : সহানুভূতি VS জাতপাতের রাজনীতি, রাহুল গান্ধীর রায় নির্বাচনে ‘দ্বিধারী তলোয়ার’ হতে পারে?||জনপ্রতিনিধিত্ব আইনের ধারা 8(3) চ্যালেঞ্জ করা হয়েছে সুপ্রিম কোর্টে, আবেদনে বলা হয়- এটা গণতন্ত্রবিরোধী||Karnataka Election 2023: কর্ণাটকে 124 জন প্রার্থীর তালিকা প্রকাশ করেছে কংগ্রেস||রামনবমীতে অস্ত্রমিছিলের প্রস্তুতি করছে বিজেপি||অনশন প্রত্যাহার সরকারি কর্মীদের, দাবিতে অনড় সরকারি কর্মচারীরা

WB সিভিক পোলস 2022 ফলাফল: সবুজ ঝড় রক্ষা করতে ব্যর্থ শিশির-শুভেন্দু

Facebook
Twitter
WhatsApp
Telegram
শুভেন্দু

কাঁথি: দীর্ঘমেয়াদী গড় বজায় রাখতে কাঁথির পরিবার কোনও চক্কর কাটেনি। কিন্তু পৌরসভা নির্বাচনে (WB Civic Polls 2022), রাজ্য জুড়ে সবুজ ঝড়ের কাছাকাছি গড় তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ে। চার দশক পর কাঁথি পৌরসভা পরিবারহীন হয়ে পড়ে। 21টি ওয়ার্ডের মধ্যে মাত্র দুটি গেরুয়া শিবিরের দখলে। 16টি ওয়ার্ডে তৃণমূল প্রার্থীরা জয়ী হয়েছেন। একটি ওয়ার্ড নির্দলীয়দের দখলে রয়েছে। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল শুভেন্দু শিবির প্রার্থী, উত্তর কাঁথির বিধায়ক সুমিতা সিংয়ের পরাজয়। তিনি 8 নম্বর ওয়ার্ড থেকে তৃণমূল প্রার্থীর কাছে হেরে যান।

প্রাক-নির্বাচনের ঠিক আগে, কাঁথির সাংসদ শিশির অধিকারীর একটি অডিও ক্লিপ ভাইরাল হয়েছিল। যাতে শোনা যায় তিনি তার ছেলে শুভেন্দু অধিকারীর প্রার্থীদের হয়ে তৃণমূল শিবিরের কাছে ভোট চাইছেন। শুভেন্দু অধিকারী বর্তমানে নন্দীগ্রামের বিজেপি বিধায়ক এবং রাজ্যের বিরোধী নেতা। তাই তার প্রার্থীদের পক্ষে প্রচার করা মানে গেরুয়া শিবিরের দিকে জনসমর্থন টানার চেষ্টা। নির্বাচনের দিন, রবিবার, প্রবীণ সাংসদ শিশির অধিকারীকে বলতে শোনা গিয়েছিল যে তৃণমূল (টিএমসি) নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে।

মাঝে মাঝে ঠিক 2 দিন কেটে যায়। বুধবার পৌর নির্বাচনের (WB Civic Polls 2022 Result) ফলাফলের পর দেখা গেল শিশিরবাবুর ‘ভবিষ্যদ্বাণী’ ঠিক 180 ডিগ্রি ঘুরে গেছে। তৃণমূল সাফ করুন। বিজেপি মুখ থুবড়ে পড়েছে। মাত্র ২টি ওয়ার্ডে পদ্মা ফুটেছে। তৃণমূল প্রার্থী তনুশ্রী চক্রবর্তী ভট্টাচার্য 15 নম্বর ওয়ার্ডে জিতেছেন যেখানে তিনি একটি বাড়ির মালিক। 13 নম্বর ওয়ার্ডে জয়ী হয়েছেন রাজ্যের মন্ত্রী অখিল গিরির ছেলে সুপ্রকাশ গিরি। তিনি সম্ভবত কাঁথি পৌরসভার পরবর্তী চেয়ারম্যান হবেন। আর এতেই প্রশ্ন উঠেছে, কাঁথিতে রাজনৈতিক ক্ষমতার কেন্দ্র থেকে কর্তৃপক্ষকে সরিয়ে ‘গিরি’ কি আধিপত্য বিস্তার করতে চলেছে?

Read More :

শিশির অধিকারী 1989 সালে প্রথম কাঁথি পৌরসভার কমিশনার নির্বাচিত হন। 1971 সাল পর্যন্ত ছিলেন। তিনি 1981 সালে প্রথমবারের মতো চেয়ারম্যান হন। তিনি 1971 সাল পর্যন্ত এই পদে অধিষ্ঠিত ছিলেন। শিশির মধ্য 9 বছর ক্ষমতার বাইরে ছিলেন। শিশির অধিকারী 1990 সালে আবার চেয়ারম্যান হন। তিনি 2005 সাল পর্যন্ত চেয়ারম্যানের পদে অধিষ্ঠিত ছিলেন। শুভেন্দু অধিকারী (সুভেন্দু অধিকারী) 2005 থেকে 2009 সাল পর্যন্ত চেয়ারম্যান ছিলেন কারণ বাবা শিশির অধিকারী বিধায়ক হন। যেহেতু তিনি একজন বিধায়কও, তার ছোট ভাই সৌমেন্দু অধিকারী 2009 সালে এই পদটি গ্রহণ করেছিলেন। তিনি 2020 সাল পর্যন্ত পৌরসভার চেয়ারম্যান ছিলেন। 2022 সালে এই ঐতিহ্যের প্রথম ছেদ হল জিরো কাঁথি পূর্ববোর্ড।

প্রি-টেস্টে ভয়াবহ ফলাফল, গড় হাত বন্ধ। ফলে কাঁথির ‘শান্তিকুঞ্জ’ এখন অশান্তির কবলে, রাজনৈতিক সাফল্যের চূড়া থেকে পতনের আওয়াজ শোনা যেতে পারে। পূর্ব মেদিনীপুরের রাজনীতিতে ‘ভোক্তা’রা হারানো গৌরব ফিরে পাবে কি আদৌ ফিরে পাবে তা এখনই বলা মুশকিল।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো খবর