প্রভাত বাংলা

site logo
নাভালনি

ইউক্রেন সংকট: পুতিনের বিরুদ্ধে অসহযোগ আন্দোলনের আহ্বান জানিয়েছেন রাশিয়ার বিরোধীদল নেতা নাভালনি

ডিজিটাল ডেস্ক: ইউক্রেনকে ঠেলে দিল শক্তিশালী রুশ সেনা। কিয়েভ এখনও দখল করতে ব্যর্থ হওয়ায় প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন কমান্ডারদের হাত ধরে একটি বাঙ্কারে নিয়ে গেছেন। তার ওপর চাপ বাড়িয়ে নতুন ফ্রন্ট খুলেছেন রাশিয়ার বিরোধীদলীয় নেতা অ্যালেক্সি নাভালনি।আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, পুতিনের কঠোর সমালোচক হিসেবে পরিচিত নাভালনি ইউক্রেনে হামলার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন। এবার তিনি পুতিনের বিরুদ্ধে অসহযোগ আন্দোলনের ডাক দিলেন। টুইটার হ্যান্ডেলের মাধ্যমে নাভালনির বার্তা, “পুতিন ইউক্রেনের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছেন। এবার তিনি সবাইকে বোঝানোর চেষ্টা করছেন যে পুরো দেশ (রাশিয়া) ইউক্রেনের বিরুদ্ধে যুদ্ধ শুরু করেছে। কিন্তু এটি সঠিক তথ্য নয়। আমরা এই যুদ্ধকে সমর্থন করি না। আমার রুশ নাগরিকদের কাছে আবেদন, আপনারা চুপ থাকবেন না। পুতিন প্রশাসনের বিরুদ্ধে অসহযোগ আন্দোলন শুরু করুন।”

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের তীব্র সমালোচক এবং বিরোধী দলের নেতা আলেক্সি নাভালনিকে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এর আগে 2020 সালে বিষ প্রয়োগ করে তাকে হত্যার চেষ্টা করা হয়। ওয়াকিবহাল সূত্রে দাবি করা হয়েছে, ঘটনার নেপথ্যে ছিলেন স্বয়ং রুশ প্রেসিডেন্ট। এমন পরিস্থিতিতে, নাভালনিকে 2021 সালে জার্মানি থেকে দেশে ফেরার পর গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। তখন থেকেই তিনি কারাগারে রয়েছেন।

Read More :

পুতিন প্রশাসনের বিরুদ্ধে দীর্ঘদিন ধরেই দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে আলেক্সির বিরুদ্ধে। নাভালনির দুর্নীতিবিরোধী ফাউন্ডেশন অতীতে ক্রেমলিনের অভ্যন্তরে অর্থ পাচার এবং ক্ষমতার অপব্যবহারের বিষয়ে তথ্য ফাঁস করেছে। ফলস্বরূপ, পুতিন সুপরিচিত ব্যক্তিদের সজাগ দৃষ্টিতে রয়েছেন। 20 আগস্ট, 2020-এ, নাভালনি সাইবেরিয়ার টমস্ক থেকে বিমানে করে মস্কোতে ফিরছিলেন। মাঝ আকাশে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন। উপায় না দেখে ওমস্ক শহরে জরুরি অবতরণ করে চিকিৎসা শুরু হয়। নাভালনির আত্মীয়দের প্রাথমিক ধারণা ছিল টমস্ক বিমানবন্দরে তাকে বিষ প্রয়োগ করা হয়েছে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, নাভালনির স্নায়ুতন্ত্র দুর্বল হয়ে পড়ছে। বার্লিনে চিকিৎসার পর সুস্থ হয়ে ওঠেন তিনি। রাশিয়ায় ফেরার পথে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *