প্রভাত বাংলা

site logo
ইউক্রেন

ইউক্রেনের বড় দাবি: 4,500 রুশ সেনা নিহত, ট্যাঙ্ক ও অস্ত্রও ধ্বংস

রাশিয়া আক্রমনাত্মক অবস্থান নিয়ে ইউক্রেনের ওপর হামলা চালালেও এর জন্য বড় মূল্যও দিতে হচ্ছে। ইউক্রেনের সেনাবাহিনী দাবি করেছে যে তারা 4,500 রুশ সেনাকে হত্যা করেছে। এ ছাড়া 150টি ট্যাংক, 27টি বিমান, 26টি হেলিকপ্টার ও বন্দুক ধ্বংস করা হয়। তবে মস্কোর পক্ষ থেকে এ ধরনের কোনো ক্ষতির বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়নি। এই যুদ্ধে ইউক্রেনের শতাধিক সেনাও মারা গেছে। ইউক্রেনের স্বাস্থ্যমন্ত্রী ভিক্টর লিয়াশকো বলেছেন, রাশিয়ার হামলায় 1,115 ইউক্রেনীয় আহত হয়েছে। তাদের মধ্যে 33 জন শিশুও রয়েছে।

ইউক্রেনের সামরিক বাহিনী বলেছে, এই হামলা চালিয়ে রাশিয়া আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করেছে এবং এই যুদ্ধে নারী ও শিশুদেরও ব্যবহার করেছে। বৃহস্পতিবার থেকে রাশিয়া ও ইউক্রেনের মধ্যে যুদ্ধ চলছে। বেলারুশিয়ান ভূমি ব্যবহার করে ইউক্রেনে প্রবেশ করেছিল রুশ সেনারা। এছাড়া রাশিয়া সমর্থিত বিচ্ছিন্নতাবাদী অধ্যুষিত এলাকা এবং ক্রিমিয়ার মধ্য দিয়েও রুশ সেনারা ইউক্রেনে প্রবেশ করেছে। ইউক্রেনের সামরিক বাহিনী তাদের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে বলেছে যে রুশ সেনাবাহিনীও ছদ্মবেশে গোপন হামলা চালাচ্ছে।

Read More :

ইউক্রেনের সেনাবাহিনী বলেছে যে রুশ সামরিক বাহিনী আন্তর্জাতিক মানবাধিকার আইন লঙ্ঘন করেছে। ইউক্রেনের সামরিক পোশাক পরে রুশ সেনারা প্রবেশ করেছে। তারা পুলিশ এবং রাষ্ট্রীয় জরুরি পরিষেবা ব্যবহার করছে। এ ছাড়া হাসপাতাল থেকে চুরি হওয়া অ্যাম্বুলেন্সও ব্যবহার করা হচ্ছে। রুশ-সমর্থিত সন্ত্রাসীরা শিশুদের ক্যাম্প ও স্কুল দখল করেছে। তবে, ইউক্রেন বজায় রেখেছে যে আমাদের অবস্থান শক্তিশালী এবং আমরা ক্রমাগত রাশিয়ার ক্ষতি করছি। ইউক্রেন দাবি করেছে যে তারা কিয়েভ থেকে 128 কিলোমিটার দূরে চেরনিহিভে রাশিয়ান বাহিনীর ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি করেছে।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *