প্রভাত বাংলা

site logo
রাশিয়া

ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ: যুদ্ধে নিহতদের মৃতদেহ উধাও, ইউক্রেনে ‘চলমান শ্মশানে’ রুশ সেনারা

ডিজিটাল ডেস্ক: চার দিন ধরে তীব্র লড়াই। যেহেতু রাশিয়ান সামরিক বাহিনী বিমান ও স্থলপথে একের পর এক প্রধান ইউক্রেনীয় শহরে অনুপ্রবেশ করতে চাইছে, বেসামরিক জনগণের একটি অংশের সহায়তায় প্রতিরোধ গড়ে তুলছে। কিন্তু এই যুদ্ধে কত প্রাণ গেল? যুদ্ধে কতজন বেসামরিক লোক নিহত হয়েছিল? দুই দেশের কতজন সৈন্য মারা গেল? তার সঠিক পরিসংখ্যান এখনও মেলেনি। সরকারি সূত্র বলছে, এ পর্যন্ত উভয় পক্ষের এক হাজারের বেশি মানুষ নিহত হয়েছে। এর মধ্যে ২৪০ জন আম নাগরিক। তবে সংশ্লিষ্ট মহলের ধারণা, এ সংখ্যা আরও বেশি হতে পারে। মৃতের সঠিক সংখ্যা না পাওয়ার কারণ রাশিয়ার কৌশল। রুশ সেনাবাহিনীর হাতে অনেক লাশ ভাংচুর করা হচ্ছে। তারা শ্মশান নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে।

এই চলমান শ্মশান কি? এটি একটি বিশেষ ধরনের ট্রাক। যার মধ্যে রয়েছে জ্বলন্ত চুল্লি। সেই জ্বলন্ত চুল্লিতে লাশ ফেলতে পারলে কষ্ট হবে। মুহূর্তের মধ্যে পুড়ে ছাই হয়ে যাবে। সাঁজোয়া যান বা অস্ত্র ও গোলাবারুদ ছাড়াও পুতিনের বাহিনী বিশেষভাবে তৈরি মোবাইল শ্মশান নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে। কিংবা নিহত রুশ সেনাদের লাশ পুড়িয়ে ফেলা হচ্ছে।

ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধে প্রকৃত হতাহতের ঘটনা ধামাচাপা দিতে রাশিয়া এমন একটি চুল্লি নিয়ে যুদ্ধক্ষেত্রে গিয়েছিল বলে দাবি করেছে যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপের বেশ কয়েকটি সংবাদমাধ্যম। একদিকে রুশ সেনাবাহিনীর লাশ পোড়ানো হচ্ছে। অন্যদিকে যুদ্ধে নিহত বেসামরিক নাগরিকদের লাশও পোড়ানো হচ্ছে। যাতে যুদ্ধের ক্ষয়ক্ষতি আড়াল করা যায়। শুক্রবার জারি করা এক বিবৃতিতে রাশিয়া এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে যে “রাশিয়ার গোয়েন্দাদের বিষয়ে একই রকম, ভিত্তিহীন অভিযোগ একাধিকবার করা হয়েছে।

Read More :

এদিকে রাশিয়ায় যুদ্ধবিরোধী বিক্ষোভ বাড়ছে। শনিবার রাশিয়ায় যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানিয়েছে বিরোধী দলগুলো। প্রশাসনও তাদের কঠোর হাতে দমন করছে। দাঙ্গা গিয়ারে থাকা পুলিশ শনিবার একটি সমাবেশে হামলা চালায়, শত শত বিক্ষোভকারীকে ট্রাকে করে সরিয়ে দেয়।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *