প্রভাত বাংলা

site logo
WAr

রাশিয়ান সেনাবাহিনী এখন কিয়েভ থেকে 32 কিলোমিটার দূরে, 3টি সেতু উড়িয়েছে ইউক্রেন

শুক্রবার টানা দ্বিতীয় দিনের মতো ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলা অব্যাহত রয়েছে। রাজধানী কিয়েভ সকালে সাতটি বড় বিস্ফোরণে কেঁপে ওঠে। রাত থেকেই মানুষ লুকিয়ে আছে ঘরবাড়ি, সাবওয়ে, ভূগর্ভস্থ আশ্রয়কেন্দ্রে। খাদ্য ও পানীয় থেকে শুরু করে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের ঘাটতি রয়েছে।ইউক্রেনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় নাগরিকদের রাশিয়ান সামরিক সরঞ্জামের গতিবিধি সম্পর্কে আপ টু ডেট রাখতে বলেছে। একই সঙ্গে তাদের দিকে পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট রাশিয়ার নাগরিকদের যুদ্ধের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ প্রদর্শনের আহ্বান জানিয়েছেন
ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি দাবি করেছেন যে রুশ বাহিনী রাজধানীতে প্রবেশ করেছে। রাশিয়ান ট্যাংক এখান থেকে মাত্র 32 কিমি দূরে। তাদের থামাতে ইউক্রেনের সেনাবাহিনী তিনটি সেতু উড়িয়ে দিয়েছে। জেলেনস্কি আশঙ্কা করেছেন যে আগামী 96 ঘন্টা অর্থাৎ 4 দিনের মধ্যে কিয়েভ রাশিয়ার দখলে চলে যাবে। তিনি বলেন, রুশ বাহিনী আবাসিক এলাকায় লক্ষ্যবস্তু করছে। তিনি রাশিয়ার নাগরিকদের এই যুদ্ধের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করার আবেদন জানিয়েছেন।

Read More :

গুরুত্বপূর্ণ আপডেট…

ব্রিটেনের বিরুদ্ধে প্রতিশোধ হিসেবে রাশিয়া সেখানে সব বিমানের জন্য তাদের আকাশসীমা বন্ধ করে দিয়েছে।

রাশিয়া ও ইউক্রেনের মধ্যে চলমান যুদ্ধে তালেবান বলেছে যে উভয় দেশেরই উচিত শান্তিপূর্ণভাবে সমস্যার সমাধান করা।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, যেসব দেশ ইউক্রেনের বিরুদ্ধে যুদ্ধে সমর্থন দেবে তাদের হাতেও রক্ত ​​থাকবে।

পশ্চিম ইউক্রেনের লিভ শহরে একটি বিমান হামলার সাইরেন শোনা গেছে। এর পর এখানকার মেয়র লোকজনকে ঘর থেকে বের না হতে বলেছেন।

রাশিয়ার হামলায় এ পর্যন্ত 137 জন নিহত হয়েছে, আর 316 জন আহত হয়েছে।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি বলেছেন, যুদ্ধে যুদ্ধ করার জন্য বিশ্ব আমাদের একা করে দিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্র ঘোষণা করেছে যে তারা ইউরোপে 7000 অতিরিক্ত সেনা মোতায়েন করছে।

ওয়াশিংটনে রুশ দূতাবাসে নিযুক্ত হাই-লেবেল কূটনীতিককে যুক্তরাষ্ট্র তার দেশ থেকে বহিষ্কার করেছে।

ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনকে ফোন করেছেন। এর আগে ভারত, পাকিস্তান, ইরানের রাষ্ট্রপ্রধানরা পুতিনের সঙ্গে কথা বলেছেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *