প্রভাত বাংলা

site logo

আনিস মৃত্যু রহস্য: ওসিকে গ্রেপ্তারের দাবি, আমতা থানায় বিক্ষোভ

আনিস হত্যার প্রতিবাদে আমতা থানায় বজ্রপাত। বৃহস্পতিবার বিকেলে আনিসের পরিবার, তার বাবা ও প্রতিবেশীদের ‘অরাজনৈতিক মিছিল’ আমতা থানা ঘেরাও করে। পরিস্থিতি প্রায় নিয়ন্ত্রণের বাইরে।বৃহস্পতিবার সকাল থেকে ছাত্রনেতা আনিস হত্যাকে কেন্দ্র করে তোলপাড় চলছে। আমতা আমতা আমতা আমতা আমতা আমতা আমতা আমতা আমতা আমতা আমতা আমতা আমতাৰ পৰিৱেশ কৰিছিল। আনিসের প্রতিবেশী ও স্বজনদের মিছিল শুরু হলে তা আরও উত্তাল হয়ে ওঠে। জনতা মিছিল করে সরাসরি আমতা থানায় ঢোকার চেষ্টা করে। মিছিল থেকে পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করা হয়। মিছিলটি থানার সামনে ব্যারিকেড ভাঙার চেষ্টা করে। তারা প্রথম দুটি ব্যারিকেডও ভেঙে ফেলে। তৃতীয় ব্যারিকেড ভাঙার আগে আনিসের বাবা মাইক্রোফোনে ভিড়কে সংযত করতে বলেন। ফুরফুরা শরীফের কাশেম সিদ্দিকী তার সাথে লোকজনকে শান্ত হতে বলেন।

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার আমতা থানার ওসি, শুক্রবার রাতে ঘটনার টেবিল ইনচার্জ, আরটি ভ্যানে যারা ছিলেন এবং সিভিক ভলান্টিয়ারদের ডেকে নিয়ে যান ভবানী ভবনে। ভবানী ভবনে তাদের জিজ্ঞাসাবাদের সময় উত্তেজিত জনতা আমতা থানা ঘেরাও করে এবং ওসিকে গ্রেপ্তার করে ফাঁসির মঞ্চে নিয়ে যাওয়ার দাবি জানায়।

ফুরফুরার কাশেম সিদ্দিকী সাফ জানিয়ে দেন, রোববারের মধ্যে আমতা থানার ওসিকে গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনা হবে। এখন থানা ঘেরাও করা হয়েছে। এরপর রবিবার এসপির কার্যালয় ঘেরাও করা হবে। প্রয়োজনে আমরা নবান্নও ঘেরাও করব। “আনিসের বাবাও তার সাথে একমত।

কাশেম মাইক্রোফোনে বলতেন, যারা ইট ছুড়ছে তারা সবাই দালাল! এটি এখানে (পঞ্চায়েত) প্রধান এবং উপপ্রধান বানাচ্ছে। রাতের আঁধারে আনিসের বাবা ও পরিবারের সদস্যদের ফোন করে সিবিআই তদন্ত দাবি করার হুমকি দিচ্ছেন তারা।

আন্দোলনকারীরা কিছুটা শান্ত হলে ফুরফুরার কাশেম ও আনিসের বাবা থানায় গিয়ে আলোচনার প্রস্তাব দেন। তারা জনতাকে বলেন, “শান্ত হও। আমরা থানার ভেতরে গিয়ে কথা বলতে চাই। বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের অনেক ছাত্রনেতা ও শিক্ষার্থী এখানে এসেছে। তাদের যে কেউ চাইলেও আমাদের সঙ্গে থানায় যেতে পারে। এর আগে ঘটনার সঙ্গে জড়িত ‘আসল’ ব্যক্তিদের গ্রেপ্তার করা হয়নি বলে তাদের দাবি, ‘আসল’ ব্যক্তিদের কেন গ্রেপ্তার করা হয়নি?

পুরো আমতা থানা ভবন ঘিরে রয়েছে বিশাল পুলিশ বাহিনী। থানার ভেতরে বিশাল পুলিশ বাহিনী রয়েছে। পরিস্থিতি চরম উত্তেজনাপূর্ণ। আমতা থানার সামনে বিক্ষোভ শুরু করেছেন গ্রামবাসীরা। এর আগে তারা থানার সামনে ব্যারিকেড ভেঙ্গে ঢোকার চেষ্টা করে।

Read More :

অন্যদিকে, রাজ্য পুলিশ আবারও রাজ্যকে আনিসের খুনের তদন্তের উপর নির্ভর করার অনুরোধ করেছে। বৃহস্পতিবার রাজ্য পুলিশ আনিস হত্যার তদন্ত নিয়ে পরপর দুবার টুইট করেছে। সেই টুইটে, আনিসের পরিবারের কথা উল্লেখ করে, তারা অনুরোধ করেছিল যে তারা রাজ্যের বিশেষ তদন্তকারী দলের (SIT) তদন্তের উপর নির্ভর করবে। এর অর্থ হল আনিসের পরিবারের সিবিআই তদন্তের দাবি থেকে সরে আসা উচিত। তবে সেই দাবি থেকে পিছু হটেনি আনিসের পরিবার।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *